প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চকবাজারের অগ্নিকাণ্ড নিয়ে বিএনপির মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞাণহীন : তথ্যমন্ত্রী

সমীরণ রায় : আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, চকবাজারের অগ্নিকাণ্ড নিয়ে সরকারকে দায়ী করার অপপ্রয়াসমূলক বিএনপির মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন ও সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য। আন্দোলনের নামে বিএনপি মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে, সে দায় খালেদা জিয়া, ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ, তাদের কোনো নেতা এড়াতে পারেন না। সেগুলো দুর্ঘটনা ছিলো না, ঘটনা ছিলো। যারা মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে, তাদের মুখে অগ্নিকাণ্ড নিয়ে এমন মন্তব্য শোভা পায়না।

শুক্রবার রাজধানীতে শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা হলে অভিনয় শিল্পীসংঘের দ্বিবার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মর্মান্তিক এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী ঘুমহীন রাত কাটিয়েছেন, বারবার দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। সরকার তৎপর রয়েছে। বিরোধী দলের উচিত এধরণের দুর্ঘটনায় সরকারের পাশে দাঁড়িয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা। এটি দুর্ঘটনা নাকি উদ্দেশ্যমূলক। তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে বেরিয়ে আসবে।

পাশের দেশ ভারতের উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, নির্বাচনের কয়েক মাস আগের সময়টিতেও ভারতে বিরোধীদল দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজের ঘোষণা দিয়েছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেশ আজ মর্মাহত ও শোকাহত। এমন সময়ে গণশুনানির নামে নাটক না করে তাদের উচিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো।
স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশ নেওয়া ও অনুপ্রেরণাদায়ী সব শিল্পীকে স্মরণ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শিল্পচর্চা জাতিকে সমৃদ্ধ করে। দেশের সংস্কৃতি অঙ্গনে অভিনয়শিল্পীদের অবদান সমুন্নত রাখতে সরকার গগণমাধ্যমের যুগান্তকারী বিকাশ সাধনসহ বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। চলতি বছরে একুশে পদকপ্রাপ্ত তিন শিল্পী সুবর্ণা মুস্তফা, লিয়াকত আলী লাকী ও লাকী ইনামকে এসময় অভিনয়শিল্পী সংঘের সম্মাননা স্মারক তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী।

অভিনয়শিল্পী সংঘের সভাপতি শহিদুল আলম সাচ্চুর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন সৈয়দ হাসান ইমাম, মামুনুর রশীদ, ড. ইনামুল হক, তৌকির আহমেদ, আফসানা মিমি প্রমুখ।

সর্বাধিক পঠিত