প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেন্টমার্টিনে অদূরে সাগর থেকে ১লাখ পিস ইয়াবাসহ আটক ১১

ফরহাদ আমিন, টেকনাফ (কক্সবাজার) : কক্সবাজারের সেন্টমার্টিনদ্বীপের অদূরে সাগরপথে বাংলাদেশে পাচারকালে একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১১জন পাচারকারিকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। আটককৃতরা হচ্ছেন, মিয়ানমারের মংডু শহরের মংনি পাড়ার আবু বকর ছেলে কবির আহমেদ (৩৫), উভয় একই এলাকার বাসিন্দা মৃত হাবিবুল্লাহ ছেলে মো. নবী(২০), করিমুল্লাহ ছেলে আমানুল্লাহ(১৮), মৃত হাবিবুল্লাহ ছেলে তারেক উল্লাহ(১৪), মৃত শেখ ছেলে কামাল উদ্দিন(২০),আবু তাহের ছেলে মোঃ ছাবের(১৮),মৃত আবু তালেক ছেলে মোঃ রিয়াজ(১৪),হাফেজ আহমদ ছেলে শাকের(১৬),নুর মোহাম্মদ ছেলে ফয়সাল(১৬),মৃত আব্দু সুফি ছেলে রহমত উল্লাহ(১৯),শামসুদ্দিন ছেলে রিয়াজ(১৮) ।
বৃহস্পতিবার ভোররাতে টেকনাফের সেন্টমার্টিনের দ্বীপের অদূরে পূর্ব-দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর থেকে ট্রলারসহ ইয়াবার এ চালানটি জব্দ করা হয়।

কোস্টগার্ড টেকনাফ ষ্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফয়জুল ইসলাম মন্ডল বলেন, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান সেন্টমার্টিন দ্বীপের অদূরে পূর্ব-দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে এমন তথ্য পায় কোস্টগার্ড। তারই সূত্র ধরে, কোস্টগার্ডের দুটি দল ওই এলাকায় কড়া নজরদারীতে রাখা হয়। বৃহস্পতিবার ভোররাতে একটি সন্দেহভাজন ফিশিং ট্রলারকে দেখতে পেয়ে কোস্টগার্ড সদস্যরা তাদের সংকেত দিলে তারা পালানোর চেষ্টা চালায়। এসময় ট্রলারটিকে ধাওয়া করে আটক করা হয়। পরে ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। আটক ১১জন পাচারকারী ও ট্রলারটি টেকনাফে আনা হচ্ছে।

ট্রালার মাঝি নবী বলেন,সাগরে মাছ ধরা অবস্থায় অপর একটি ট্রলার তাদের কাছে এসে অস্ত্র মুখে জিম্মি করে বলেন ইয়াবা গুলো আর একটি ফিশিং ট্রলারে তুলে দিতে প্রানের ভয়ে তারা ইয়াবা গুলো পৌঁছে দিতে রাজি হয়।অপর ট্রলারের একজনের নাম্বার দেওয়া হয় সে নাম্বার দিয়ে যোগাযোগ করে এসে আটকা পড়ে তারা।আটক পাচারকারীরা সকলেই মিয়ানমারের নাগরিক বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসা তারা স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। আটককৃত ইয়াবা ও আসামিকে পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত