প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বেতন কম পান আবার বেকারও বেশি নারীরা, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন

কালাম আঝাদ : বর্তমানে দেশে নারীরা পুরুষের তুলনায় কম বেতনে চাকরি করেন। একইসঙ্গে নারী বেকারের হার পুরুষদের চেয়ে বেশি। সম্প্রতি প্রকাশিত পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

বাংলাদেশ প্ল্যানিং কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি সম্পর্ক বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. শামসুল আলম পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে এ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছেন।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি ‘এসডিজি বাংলাদেশ প্রোগ্রেস রিপোর্ট ২০১৮’ শীর্ষক মন্ত্রণালয়ে প্রদত্ত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়- প্রতি ঘণ্টায় কাজের ক্ষেত্রে গড়ে পুরুষরা পান ১৩ হাজার ৫৮৩ টাকা আর নারীরা পান ১২ হাজার ২৫৪ টাকা। গড়ে পুরুষ ও নারীরা পান ১৩ হাজার ২৫৮ টাকা। প্রতি ঘণ্টায় ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী পান ১০ হাজার ৮৩১ টাকা, ২৫ থেকে ৩৪ বছর বয়সী ১৩ হাজার ২০৪ টাকা, ৩৫ থেকে ৪৪ বছর বয়সী ১৪ হাজার ১৪৩ টাকা, ৪৫ থেকে ৫৪ বছর বয়সী ১৫ হাজার ৪৪৬ টাকা, ৫৫ থেকে ৬৪ বছর বয়সী ১৪ হাজার ৫১১ টাকা এবং ৬৫ বছরের বেশি বয়সী একজন ঘণ্টা প্রতি পারিশ্রমিক নেন ১১ হাজার ৫৮০ টাকা।

তথ্যমতে, প্রতিবন্ধীসহ দেশে বেকারের গড় হার ৪ দশমিক ২ শতাংশ। পুরুষ বেকারের হার ৩ দশমিক ১ শতাংশ এবং নারী বেকারের হার ৬ দশমিক ৭ শতাংশ। আর ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের মধ্যে বেকারের হার ১২ দশমিক ৩ শতাংশ। একইসঙ্গে ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের মধ্যে শিক্ষা, চাকরি বা প্রশিক্ষণে না থাকার গড় হার ২৯ দশমিক ৮ শতাংশ। এর মধ্যে ১০ দশমিক ৩ শতাংশ ছেলে ও ৪৯ দশমিক ৬ শতাংশ মেয়ে।

সার্বিক বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ২০২০ সালে প্রতি ঘণ্টায় গড় বেতন ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। নারী ও পুরুষের বৈষম্য কমিয়ে আনা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত