প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সদিচ্ছা এবং সততার অভাবে স্বাধীনতার এতোবছরেও মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা হয়নি, বললেন আবুল ফয়েজ

জুয়েল খান : ফরিদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধার ইউনিট কমান্ডার মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতাসহ বিভিন্ন সুযোগ- সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এই সরকারের আমলেই প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার তালিকা হওয়া উচিত।
এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, ২০০৫ সাল পর্যন্ত যে সকল মুক্তিযোদ্ধা মুক্তিবার্তা এবং বিভিন্ন বাহিনীর গেজেটর্ভুক্ত হয়েছেন তারা থাকবেন। বাকি যারা বিভিন্ন সময় মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অন্তভুক্ত তাদেরকে স্থগিত করার কথা আমাদের জানানো হয়েছে। তবে ৪০ হাজার মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ দেয়া হবে এমন কোনো নির্দেশনা আমাদের জানা নেই।
তিনি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া তৃণমূল থেকে হয়। যারা ব্যক্তিগতভাবে মন্ত্রণালয় থেকে বিভিন্ন সময়ে নানা ফাঁক ফোকড়ে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় এসেছেন তারাই মূলত বাদ পড়বেন। বাদ পড়া ব্যক্তিদের নাম উপজেলায় আসবে, সেখান থেকে যাচাই- বাছাই করে এদের মধ্যে যারা টিকবেন তাদের নাম আবার মন্ত্রণালয়ে পাঠানে হবে। তিনি জানান, নতুন করে যারা মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অন্তর্ভূক্ত হওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তাদের দুইটা শ্রেনিতে ভাগ করে একটা অংশকে সর্বসম্মতিক্রমে পাস করা হয়েছে।
বাকি যাদের দ্বিধাবিভক্ত সিদ্ধান্ত হয়েছে তারা আপিল করায় তাদের বিষয়ে জামুকা যদি মনে করে তাহলে তারা নতুন করে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত