প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পশ্মিবঙ্গে পাকিস্তান প্রেমী অভিযোগ এনে নগ্ন করে হেনস্থা

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় আত্মঘাতী হামলায় চল্লিশ জনেরও বেশি ভারতীয় আধা সামরিক সদস্যের মৃত্যুর পর গত কয়েকদিনে যারা সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘যুদ্ধবিরোধী’ পোস্ট দিয়েছন, এমন অনেকের বিরুদ্ধেই ভারতের জনতা সংঘবদ্ধভাবে হামলা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পশ্চিমবঙ্গেও বেশ কয়েকটি ঘটনাতে এমন অনেককে নগ্ন ভারতের জাতীয় পতাকা মুড়য়ে ঘোরানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের ‘ভারত মাতা কি জয়’ শ্লোগান দিতেও বাধ্য করা হয়েছে। বিবিসি
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও এদিন অভিযোগ করেছেন বিজেপি ও আরএসএসের লোকজনরাই পাকিস্তান-প্রেমের অভিযোগ এনে এই সব হামলা চালাচ্ছে, যদিও বিজেপি¡ তা অস্বীকার করছে। ভারতের অন্যতম প্রগতিশীল রাজ্য বলে পরিচিতি পশ্চিমবঙ্গেও গত আটচল্লিশ ঘন্টাতে দেশবিরোধিতার অভিযোগ এনে যত হামলা চালানো হয়েছে, তা নজিরবিহীন। দুর্গাপুরে কৃষ্ণেন্দু সেনগুপ্ত নামে কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থা জীবন বিমা নিগমের এক কর্মীকে ভারতবিরোধী পোস্ট করার অভিযোগে সাসপেন্ড পর্যন্ত করা হয়েছে। কোচবিহারের অনীক দাস নামে এক যুবক ফেসবুকে লিখেছিলেন তিনি যুদ্ধ সমর্থন করেন না, তাকে ক্ষুব্ধ জনতা ঘিরে ধরে ‘পাকিস্তান মুর্দাবাদ’ স্লোগান দিতে বাধ্য করেছে। মোবাইল ফোনে ধারণ করা ভিডিওতে দেখা গেছে, স্থানীয় কিছু লোকজন অনীকের ওপর চড়াও হয়ে কৈফিয়ত দাবি করতে থাকেন, তিনি কেন ভারতের বিরুদ্ধে ফেসবুকে কথা বলেছেন? ওই যুবক বারবার বলেছেন, তিনি শুধু এটুকুই জানাতে চেয়েছিলেন উগ্র দেশপ্রেমের নামে যা সব বলা হচ্ছে তিনি তা সমর্থনও করেন না, আবার বিরোধিতাও করেন না। কিন্তু জনতা তার কথা না শুনে তাকে নগ্ন করে হাতে ভারতের জাতীয় পতাকা ধরিয়ে দিয়ে ‘হিন্দুস্তান জিন্দাবাদ’ এবং ‘পাকিস্তান মুর্দাবাদ’ স্লোগান দিতে বাধ্য করে।
এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এক সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন, বিজেপি ও আরএসএসের নেতা-কর্মীরাই পাকিস্তান-প্রেমের মিথ্যা অভিযোগ এনে কিছু মানুষকে দেশদ্রোহী সাজাতে চাইছে। তিনি বলেন, ‘এই রাজ্যের আরএসএস নেতারাও মেসেজ ছড়াচ্ছেন, আমার কাছেও যার কপি এসেছে, যে পুলওয়ামার ঘটনার জন্য পাকিস্তানকে যেমন শাস্তি দিতে হবে, তেমনি দেশের ভেতর লুকোনো পাকিস্তান প্রেমীদেরও খুঁজে বের করতে হবে। তো এই পাকিস্তান প্রেমী বলতে কাদের বোঝানো হচ্ছে? আরএসএস, বিজেপি আর বিশ্ব হিন্দু পরিষদের বাইরে ভারতে যারা আছেন তাদের সবাইকে কীভাবে পাকিস্তান-প্রেমী বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে?’

সর্বাধিক পঠিত