প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাধারণ সিগারেটের বদলে ই-সিগারেট খেলে কারাদ- দেবে হংকং!

আসিফুজ্জামান পৃথিল : বিশে^র অনেক ধূমপায়ীই সিগারেটের বদলে ইলেক্ট্রনিক সিগারেট এবং ভেপারের দিকে ঝুঁকছেন। এই সিগারেটগুলোর মাধ্যমে সাধারণ তামাক পোড়ানোর বদলে বিশেষ তামাক তাপ দিয়ে ধুমপান করা যায়। অনেকেই মনে করেন সাধারণ সিগারেটের তুলনায় এই ধরণের সিগারেটে ক্ষতি নুন্যতম। কিন্তু কিছু গবেষণা বলছে এই ধরণের সিগারেটেই বরং সাধারণ সিগারেটের তুলনায় ক্ষতি অনেক বেশি। তাই হংকং এই ধরণের কৃত্রিম সিগারেট বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এমনকি সাধারণ সিগারেট না খেয়ে এই ধরণের সিগারেট খেলে কারাদ- পর্যন্ত হতে পারে! সিএনএন
১৮ বছর বয়স থেকে ধূমপান শুরু করেন রবার্ট চ্যান। তিনি দ্রুতই আসক্ত হয়ে পড়েন এবং দিনে ১৫টির বেশি সিগারেট খেতে থাকেন। বেশ কয়েকবছর ধূমপান ত্যাগের চেষ্টা করছেন তিনি। কিন্তু তিনি তার নিকোটিনের নেশা ত্যাগ করতে পারছেন না। ২ বছর আগে তার ৩০তম জন্মদিনে তিনি ই-সিগারেট ব্যবহার শুরু করেন। তার ডিভাইসটি তামাক পোড়ানোর বদলে গরম করে। চ্যানের মতো বিশে^র সাড়ে ৩ কোটি মানুষ ই-সিগারেট ব্যবহার করেন। নিজ দেশের নতুন আইনের সমালোচনা করে চ্যান বলেন, ‘আমি ধুমপান ছাড়তে চেয়েছিলাম, কিন্তু নিকোটিনের নেশা ছাড়তে পারিনি। আমি এটাকে সিগারেটের চেয়ে কম ক্ষতিকর যন্ত্র হিসেবে দেখি। এটিতে ছাই হয় না, গন্ধ নেই এবং আমার ফুসফুসগুলো আগের চেয়ে ভালো কাজ করছে।’
কিন্তু বিশ^ব্যাপি এই শিল্প আজ যুদ্ধের মুখে রয়েছে। ধুমপায়িরা এই যন্ত্র ব্যবহার করে ধুমপান ছাড়তে চাইলেও সরকারগুলো এর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। গত মাসে হংকং একটি নতুন আইন প্রনয়ন করে। নতুন আইন অনুযায়ী যদি সাধারণ সিগারেটের বদলে কেউ ই সিগারেট খান, তবে তার ৬ মাসের কারাদ- এবং ৫০ হাজার হংকং ডলার জরিমাণা করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত