প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুসলিম উম্মার শান্তি কামনা করে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

মহসীন কবির : বিশ্বের মুসলিম উম্মার সুখ, শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি, ভ্রাতৃত্ববোধ, ক্ষমা প্রার্থনা ও মঙ্গল কামনা করে আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হল দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা। মঙ্গলবার বেলা পৌঁনে ১২টায় মোনাজাত শুরু হয়ে তা শেষ ১২টা ১৩ মিনিটে। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজের অন্যতম মুরব্বি হযরত মাওলানা শামীম।

এর আগে বাদ ফজর উর্দুতে বয়ান করেন দিল্লির হাফেজ ইকবাল নায়ার। পরে তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের ওসামা বিন ওয়াসিফ। সকাল ১০টার দিকে উর্দু ভাষায় হেদায়েতি বয়ান করেন দিল্লির মাওলানা শামীম এবং বাংলায় তা তরজমা করেন মাওলানা আশরাফ আলী। এরপর আবার দিল্লির মাওলানা শামীম কিছু কথা বলে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা শুরু করেন।

দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এবারের ৫ দিনের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হয়েছে। গতকাল সোমবার আখেরি মোনাজাত হওয়ার কথা থাকলেও সা’দপন্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে একদিন বাড়ানো হয়। সোমবার বাদ ফজর থেকেই ইজতেমা ময়দানে শুরু হয় ধর্মীয় বয়ান।

বাদ ফজর বয়ান করেন দিল্লির হযরত মাওলানা মুরসালিন। বাংলায় তরজমা করে শোনান বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল্লাহ মনসুর। জোহর থেকে মাগরিব পর্য তাবলিগ জামাতের শীর্ষ পর্যায়ের মুরব্বি দিল্লির হযরত মাওলানা শাহজাত, বাংলাদেশের মাওলানা সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম ও মাওলানা শওকত হোসাইন বয়ান করেন।

দ্বিতীয় এই ইজতেমা রোববার থেকে শুরু হয়। ঘন কুয়াশা, কনকনে শীতের মধ্যেই তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বিদের গুরুত্বপূর্ণ বয়ান ও মুসল্লিদের নফল নামাজ, তাসবিহ তাহলিল, জিকির আজকারের মধ্যদিয়ে সোমবার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত হয়েছে।

বিশ্ব তাবলিগ জামাতের আমির দিল্লির হযরত মাওলানা সা’দ এর নির্দেশক্রমে তাবলিগ জামাতের ৩২ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ইজতেমা ময়দানে রয়েছেন। সোমবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন ইজতেমার এ পর্বের মুরব্বি মাওলানা আশরাফ আলী।

প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজের অন্যতম মুরব্বি হযরত মাওলানা শামীম। তিনিই মাওলানা সা’দের পরামর্শে আজকের মোনাজাত পরিচালনা করবেন। ব্রিফিংয়ে সা’দপন্থীদের মুরব্বি মাওলানা আশরাফ আলী বলেন, যতদিন পর্যন্ত আদর্শগত পার্থক্য থাকবে ততদিন পর্যন্ত একসঙ্গে ইজতেমা করার প্রশ্নই আসে না।

তিনি বলেন, ইজতেমায় মাওলানা সা’দের অংশগ্রহণের বিষয়ে নিশ্চিত হতে চাই। তিনি ছাড়া বিশ্ব ইজতেমায় পরিপূর্ণতা আসে না। আদর্শগত ভিন্নতার কারণে ভিন্নভাবে ইজতেমা হচ্ছে।

ইজতেমার শ্রোতাও ভিন্ন, বক্তা ভিন্ন, আলোচনা হচ্ছে ভিন্নভাবে আর আদর্শও ভিন্ন। ফলে এটাকে সব দিক থেকে এক ইজতেমা বলার উপায় নেই। এবারের ইজতেমা আয়োজনে স্বরাষ্ট্র ও ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর আন্তরিক প্রচেষ্টার কথা তিনি স্বীকার করেন।

বলেন, তারা যদি ভুল বুঝতে পারে যে তাদের এ ধরনের সংঘাতে যাওয়া ক্ষতি হচ্ছে, মুসলমানের ক্ষতি হচ্ছে তাহলে আগে যেমন মাওলানা সা’দ সাহেবের নিজাম উদ্দিনের পরিচালনায় একসঙ্গে ইজতেমা হতো এর পরেও সেভাবে হবে। ব্রিফিংয়ে মাওলানা আশরাফ আলী ছাড়াও বিদেশি মেহমানদের জিম্মাদার রেজা আরিফ, মুরব্বি আবদুল্লাহ শাকিল, সাজেদুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যান চলাচল বন্ধ থাকবে : আখেরি মোনাজাতের সুবিধার্থে আজ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচলের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। মোনাজাতের সময় উত্তরার আবদুল্লাহপুর থেকে ভোগড়া বাইপাস এবং মীরের বাজার থেকে স্টেশন রোড পর্যন্ত উভয়মুখী মহাসড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত