প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নবীন মন্ত্রিসভার জন্য হেভিওয়েট সংসদীয় কমিটি

আসাদুজ্জমান সম্রাট : জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের প্রথম ১০ দিনের মধ্যে সংসদীয় কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ। নবীনদের নিয়ে মন্ত্রিসভা গঠন করা হলেও সংসদীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছে অভিজ্ঞ সংসদ সদস্য, মন্ত্রী ও রাজনৈতিক নেতারা। সরকারের কর্মকাণ্ডের ওয়াচডগ হিসেবে পরিচিত সংসদীয় কমিটিতে হেভীওয়েট রাজনৈতিক নেতারা স্থান পাওয়ায় সরকারের কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিকের মতে দলের সিনিয়র নেতারা সংসদীয় কমিটির সভাপতি হওয়ায় মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের কাজের হিসাব নিতে সুবিধা হবে। ইতিপূর্বে অনেক ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সংসদীয় কমিটিকে উপেক্ষা করার যে প্রবণতা ছিল তা অনেকাংশে হ্রাস পাবে। ফলে সংসদীয় কমিটিগুলো অনেক বেশি কার্যকর হবে।

জাতীয় সংসদের শিল্প মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি করা হয়েছে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও সাবেক মন্ত্রী আমির হোসেন আমুকে। এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। নতুন এই মন্ত্রীকে সংসদীয় কমিটির প্রতিটি বৈঠক জবাবদিহি করতে হবে প্রবীন নেতাকে।

একইভাবে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুন্সীকে সামলাতে হবে আরেক হেভীওয়েট নেতা তোফায়েল আহমেদকে। প্রথমবার এমপি হয়েই মন্ত্রী হওয়ায় গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে সামলাতে হবে একই মন্ত্রণালয়ের সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনকে।

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা নিজ হাতে লিখে সবগুলো সংসদীয় কমিটি গঠন করেছেন। এটিও সংসদীয় ইতিহাসে একটি রেকর্ড। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদ নেতার হাতে লেখা কমিটিগুলো সংরক্ষণের ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, সংসদীয় ইতিহাসে এটি একটি বিরল নজির এবং গুরুত্বপূর্ণ দলিল।

টানা তিন দফায় সরকার গঠন করে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার সরকারের কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেছেন। এ কারণে মতিয়া চৌধুরীর মতো ডাক সাইটের নেতাকেও সংসদীয় কমিটির সভাপতি করা হয়েছে। সিনিয়র নেতাদের মধ্যে শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আব্দুল মতিন খসরু, সাবেক দুই চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ, আ স ম ফিরোজ, এইচ এন আশিকুর রহমান, সাবেক মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার, শামসুল হক টুকু, ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলাম প্রমুখ।

মহাজোটের শরীক সাবেক মন্ত্রীদের মধ্যে হাসানুল হক ইনু, রাশেদ খান মেনন, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, মুজিবুল হক চুন্নু ও ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী সংসদীয় কমিটির সভাপতি হয়েছেন। নবীন মন্ত্রিসভার সদস্যরা তাদের কাজের জবাবদিহিতার বিষয়ে অনেক সতর্ক থাকবেন বলে আশা করছেন সংসদের সংশ্লিষ্টরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত