প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিসিবির সন্দেহভাজন বোলারদের পরীক্ষা আগামী সপ্তাহে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিপিএল ষষ্ঠ আসরে ত্রুটিপূর্ণ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে অভিযুক্ত তিন বোলারের বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা আগামী সপ্তাহে নেয়া হবে। পরীক্ষা শেষে ৪-৫ দিনের মধ্যেই জানিয়ে দেয়া হবে কার অ্যাকশন কতটা শুদ্ধ। পরীক্ষায় যাদের অ্যাকশন ত্রুটিপুর্ণ প্রমাণিত হবে তাদের আনা হবে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যে।

অভিযুক্তরা হলেন, ঢাকা ডায়নামাইটস স্পিনার অ্যালিস আল ইসলাম, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স স্পিনার সঞ্জিত সাহা দ্বীপ ও রংপুর রাইডার্সের স্পিনার নাহিদুল ইসলাম।
বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এ তথ্য দিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন ম্যানেজার নাসির উদ্দীন আহমেদ নাসু। তিনি জানান, ‘ওরা আমাদের অ্যাসেসমেন্টে আসবে। আগামী সপ্তাহে টেস্ট নেব। এর চার-পাঁচ দিন পরেই জানাবো, কার অ্যাকশনের কী অবস্থা। কারো অ্যাকশন ত্রুটিপূর্ণ ধরা পড়লে তাদেরকে আমরা পুনর্বাসনের মধ্যে নিয়ে আসবো।’

তিনি আরো জানিয়েছেন, বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির কাছে পরীক্ষা দিয়ে বোলিং অ্যাকশন শোধরানোর আগে এই তিন বোলার বোলিং করতে পারবেন না।

সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে ত্রুটিপূর্ণ বোলিংয়ে প্রথম অভিযুক্তের নাম ঢাকা ডায়নামাইটসের অভিষিক্ত হ্যাটট্রিক ম্যান অ্যালিস ইসলাম। রংপুরের বিপক্ষে টুর্নামেন্টের প্রথম হাইভোল্টেজ ম্যাচেই হ্যাটট্টিক করে বসেন তিনি। তবে তার সেই সুখস্মৃতি প্রলম্বিত হতে দেয়নি রংপুর টিম ম্যানেজমেন্ট। ম্যাচ শেষে তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে তারা সন্দেহ প্রকাশ করে বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দেয়। অভিযোগ দেয়া হয় ম্যাচ রেফারিকেও। আম্পায়ার্স রিপোর্টেও নাকি অ্যালিসের বোলিং অ্যাকশনে ‘চাকিং’-এর নমুনা রিপোর্ট জমা দেয়া হয়।

ফলে বিপিএল চলাকালীনই তার বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন বিপিএল টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। সে সময় তিনি বলেছিলেন, ‘মাঠের আম্পায়ারদের প্রতিবেদনেও বিষয়টির উল্লেখ রয়েছে। তাতে পরবর্তী দুই সপ্তাহের মধ্যে বোলিং অ্যাকশনের বৈধতা প্রমাণ করতে হবে অ্যালিসকে। অন্যথায় নিষেধাজ্ঞা আরোপিত হবে তার বোলিংয়ের ওপর।’ কিন্তু পরে এ ব্যাপারে আর কোনো অগ্রগতি দেখা যায়নি।

অ্যালিসের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সাদা চোখে প্রশ্ন করার সুযোগ কম। কিন্তু তার মূল অস্ত্র ‘দুসরা’ বলে নাকি সমস্যা আছে। রংপুরের অভিযোগ দুসরার সময় কনুই ১৫ ডিগ্রির বেশি বাঁকে তার। প্রথম বিভাগেও নাকি তার বিরুদ্ধে চাকিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত