প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দণ্ডপ্রাপ্ত দলের নেতাদের কথা বলার নৈতিক অধিকার থাকতে পারে না: হানিফ

আহমেদ জাফর: জাতির সামনে বলার মতো কোনো ইস্যু নেই বিএনপির। যে দলের শীর্ষ নেতারা আদালতের তরফ থেকে দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে ও বিদেশে থাকেন। সেই দলের নেতাদের কথা বলার আর নৈতিক কোনো অধিকার থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল-আলম হানিফ।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে স্বপ্ন ফাউন্ডেশন আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।
হানিফ বলেন, জাতির সামনে কথা বলার জন্য এখন কোনো ইস্যু নেই। তারা এখন জাতীয় সংসদ নির্বাচন ইস্যু বানাতে চায়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে অসন্তোষ থাকলে ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন। যারা ক্ষমতায় থাকতে দেশের জন্য কিছু করতে পারেনি। বিরোধীদলে থেকেও মানুষ হত্যা করেছে। তারা এখন নির্বাচন নিয়ে নানা কথা বলছে। এসব বিতর্কিত কথাবার্তা বলে কোনো লাভ হবে না। অসন্তোষ থাকলে ট্রাইব্যুনালে মামলা করতে পারেন।

আমাদের দেশে আইন আছে, যেকোনো সংক্ষুব্ধ প্রার্থী মামলা করতে পারেন। আপনারা যদি মামলা করে থাকেন তাহলে সেই মামলা নিষ্পত্তি পর্যন্ত অপেক্ষা করেন।

বিএনপিসহ সকল দলের কাছে অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, রাজনীতি যদি দেশের কল্যাণে, দেশের মানুষের স্বার্থে, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে হয় শেখ হাসিনাকে সহায়তা করুন। যদি সহায়তা না-ই করতে পারেন, অযথা বিতর্কমূলক বিশৃঙ্খলা কথাবার্তা বলবেন না। বিএনপিসহ যারা পরাজিত হয়েছেন, তারা তাদের অতীতের কর্মকান্ড মূল্যায়ন করে ভবিষ্যতে জনগণের আস্থা অর্জন করতে পারবে। অন্যদের ওপর নিজেদের ব্যর্থতার দায়ভার চাপিয়ে কোনো সুফল হবে না।

ডাকসু নির্বাচনের বিষয়ে হানিফ বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হয়েছে। আমরা আশা করি এই নির্বাচনে সকল ছাত্র সংগঠন অংশ নেবে। উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হবে। নির্বাচিতরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কল্যাণের জন্য কাজ করবেন।

স্বপ্ন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মো. আফজাল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত