প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাকার পার্কের আনুষ্ঠানিকতা

ডেস্ক রির্পোট : মরুর বুকে ডুয়েটিয়ানদের পদচারনা দুই দশকেরও বেশি ,আরব আমিরাতে ডূয়েট নামে একসাথে হওয়ার ইতিহাসের শুরু ২০০৭ এ শারজাহ এর আল মাজাজ পার্ক এর পিকনিক থেকে । সেই থেকে প্রায় প্রতি বছরই এ মিলন মেলা চলছে ।
এ বারের আয়োজন অন্যবারের থেকে ব্যতিক্রম , কয়েক বছর থেকেই রাইস আল খাইমার ডুয়েটিয়ানরা বলছিলেন তাদের ওখানে আয়োজন করার ,আকিক ভাই দলনেতা তাদের ,প্রস্তুতি বৈঠকে তাই ভেনু হিসাবে সর্বসম্মতিক্রমে পাশ হল সবিশাল পাহাড়ের কোল ঘেষে রাস আল খাইমার সাকার পার্ক ।

ফেব্রুয়ারির ৮ , শুক্রবার কে সামনে রেখে শুরু হল জোর প্রস্তুতি , প্রত্যেকবারই বড়ভাইদের বেশি অনুদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানকে সফল করতে হয় , এবারে এগিয়ে আসলেন তরুনরা, কুষ্টিয়ার তরুন উদ্যোক্তা প্রকৌশলী জহির রেহান বললেন তার কোম্পানি ইভেন্ট এর টি শার্ট স্পন্সর করবে তুমুল করতালির মাধ্যমে গৃহিত হল, ইতিসালাতের আরেক প্রকৌশলী নূরে আলম বললেন তিনি একটি প্রতিযোগিতার পুরস্কার দিবেন , এভাবে এগিয়ে আসলেন আরো অনেক , আমি দায়িত্ব নিলাম মিডিয়ার। আরটিভি আমাদের মিডিয়া পার্টনার হল।

পুরস্কার কেনা দাওয়াত দেয়া অংশগ্রহনকারিদের লিষ্ট করতে বরাবরের মত প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান দায়িত্ব নিলেন । হোষ্ট ষ্টেট নিল খাবারের দায়িত্ব , খবর আসতে লাগল খাসী কেনা হয়েছে চলছে আরও যোগাড় যন্ত্র । চিন্তিত আকিক ভাই কি খাওয়াবেন কেমন হবে ইত্যাদি । এভাবেই চলে আসল সেই ক্ষন ।

৮ ই ফেব্রূয়ারি রাস আল খাইমার সাকার পার্কে অনুষ্ঠিত হল সংযুক্ত আরব আমীরাতের বসবাসরত ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ডুয়েটের প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রিদের এক বিশাল মিলনমেলা ।

শিশুদের আর্ট প্রতিযোগতা, ভাষা দিবসের স্মরন, বিভিন্ন খেলাধুলা আর ক্যাম্পাসের দিনগুলোর গল্প ও সারাদিন নানা রকম আয়োজনে মরুর বুকে আমিরাতের ফুজিরা , আবুধাবি,শারজাহ ,দুবাই ,আল আইন , উম্মুল কোয়েন ,আজমান আর হোষ্ট ষ্টেট রাস আলখাইমার শতাধিক প্রকৌশলী পরিবারবর্গের স্বতফুর্ত উপস্থিতিতে সাকার পার্ক একদিনের জন্য হয়ে উঠল একটি জিবন্ত ডুয়েট ক্যাম্পাস । টাইম মেশিনে চড়ে সবাই ফিরে গেল যার যার পুরানো দিনে পুরানো বন্ধুদের সাথে ।
রাস আল খাইমার ডুয়েটিয়ানদের সংগঠক প্রকৌশলী আকিকুর রহমান এর স্বাগত বক্তব্যে শুরূ হয় অনুষ্ঠান। তারপর একে একে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের অন্যতম সংগঠক প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান কবির, মমিনুল ইসলাম মানিক , নূরে আলম, হুমায়ুন কবির, নেছার উদ্দিন , অনুষ্ঠানের টাইটেল স্পনসর প্রকৌশলী জহির রেহান , মিল্টন বিশ্বাস সহ আরও অনেকে । ডুয়েটের মহিলা সদস্য নিলা ,আলো,আর তাঞ্জিলারাও ক্যাম্পাসের সেই সোনালীদিনগুলো স্মরন করে আবেগ আল্পুত হয়ে পড়ে।

ডুয়েটের ১ম ব্যাচের গ্রাজুয়েট দুবাই আইইবির প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আব্দুস সালাম খান এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ইঞ্জিনিয়ারিং এসোসিয়েশন দুবাই ও নর্থান এমিরেটস এর সেক্রেটারি ডুয়েটিয়ান প্রকৌশলী জাহাংগির আজিজ , প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন ,প্রকৌশলী আনিসুর রহমান সহ আরো অনেক সিনিয়র প্রকৌশলীবৃন্দ। বক্তারা প্রকৌশল পেশার এই আন্তজার্তিক প্রতিযো্গিতায় নিজেদের পেশাগত যোগ্যতা বৃদ্ধি ,পারস্পরিক মতবিনিময় ও যোগাযোগ বাড়ানোর মাধ্যমে দেশকে ও ডুয়েটকে বৈশ্বিক এই মিলনমেলায় তুলে ধরার আহবান জানান।
অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা এবং খেলাধুলা পরিচালনায় ছিলেন ইঞ্জিনিয়ারিং এসোসিয়েশন দুবাই ও নর্থান এমিরেটস এর সাংগঠনিক সম্পাদক ও আরব আমীরাতে ডুয়েটিয়ানদের অন্যতম সংগঠক প্রকৌশলী মুহাম্মাদ মঈনুল ইসলাম ।

অনুষ্ঠানের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করেন মুস্তাফিজুর রহমান ,আশরাফুজ্জামান রাজু,আশরাফুল ইসলাম , আবুল কালাম আযাদ, রফিকুল ইসলাম , শেখর , রানা সহ বিভিন্ন ব্যাচের ডুয়েটিয়ান প্রকৌশলীবৃন্দ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত