প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেন্ট লুসিয়াতে জয়ের দ্বারপ্রান্তে ইংলিশরা

স্পোর্টস ডেস্ক : সেন্ট লুসিয়া টেস্টে জয়ের প্রহর গুনতে শুরু করেছে সফরকারী ইংল্যান্ড। স্বাগতিক উইন্ডিজদের বিপক্ষে সেন্ট লুসিয়া টেস্টে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে সফরকারী ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটে ৩৬১ রান তুলে ইনিংস  ঘোষণা করেছে জো রুটের দল। তাতে স্বাগতিকদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ৪৮৫ রানের। এই রান তাড়া করতে নেমে ৩৫ রানেই ৪ উইকেট হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চতুর্থ দিনের লাঞ্চ বিরতি চলছে।

ইংলিশদের এই রানের মূল ভিত গড়ে দিয়েছেন অধিনায়ক রুট, ডানহাতি ব্যাটসম্যান জো ডেনলি এবং পাঁচ নম্বরে খেলতে নামা জস বাটলার । রুট ১১১ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়লেও ডেনলি আউট হয়েছিলেন ৬৯ রানে। আর বাটলারও পেয়েছিলেন অর্ধশতকের দেখা।

এদিন বিনা উইকেটে ১৯ রান নিয়ে দিন শুরু করেছিলেন দুই ইংলিশ ওপেনার কিটন জেনিংস এবং ররি বার্নস। কিন্তু স্কোরবোর্ডে কোনও রান যোগ না করতেই বার্নসকে আলজারি জোসেফের হাতে ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান কিমো পল। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে জেনিং এবং ডেনলির ব্যাটে ৫৪ রানের জুটি পেয়েছিলো ইংল্যান্ড।

২৩ রান করা জেনিংসকে বোল্ড করে সেই জুটিটি ভাঙ্গতে সক্ষম হন ক্যারিবিয়ান পেসার জোসেফ। এরপরেই খেলতে নেমেছিলেন অধিনায়ক রুট। ডেনলির সাথে দারুণ দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে গড়েছিলেন ৭৪ রানের আরেকটি অসাধারণ জুটি।

৬৯ রান করে ধীর ধীরে নিজের অভিষেক শতকের পথে এগিয়ে যাচ্ছিলেন ৩২ বছর বয়সী ডেনলি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শেন ডওরিচের হাতে ক্যাচ বানিয়ে তাঁর আশা ভঙ্গ করেছেন শ্যানন গ্যাবিয়েল। ১৪৭ রানের মাথায় ডেনলির উইকেটটি হারানোর পর জস বাটলারকে সাথে নিয়ে ক্যারিবিয়ানদের পথে আরেকটি বাঁধা সৃষ্টি করেন অধিনায়ক রুট। গড়েন ১০৭ রানের বড় জুটি।

গলার কাঁটা হয়ে ওঠা এই জুটিটি ভাঙ্গতে পেরেছিলেন কেমার রোচ। ৫৬ রান করা বাটলারকে বোল্ড করে নিজের প্রথম উইকেট তুলে নেন তিনি। বাটলার ফিরলেও সেভাবে বিপদে পড়তে হয়নি সফরকারীদের। কেননা নতুন ক্রিজে নামা বেন স্টোকসের সাথে এরই মধ্যে ৭১ রানের জুটি গড়ে তুলেছেন অধিনায়ক রুট। আর উইকেট না হারিয়ে মাঠও ছেড়েছেন তারা ৩২৫ রান নিয়ে।

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে টসে হেরে শুরুতে ব্যাটিং করতে নেমে জস বাটলার এবং বেন স্টোকসের জোড়া অর্ধশতকে ২৭৭ রান সংগ্রহ করেছিলো ইংল্যান্ড। স্টোকস ৭৯ এবং বাটলার ৬৭ রান করেছিলেন। সফরকারীদের এত অল্প রানে বেঁধে ফেলার পেছনে মূল কৃতিত্ব ছিলো পেসার কেমার রোচের। ৪৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ইংলিশ শিবিরে ধ্বস নামিয়েছিলেন তিনি। এছাড়াও আলজারি জোসেফ, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল এবং কিমো পল নিয়েছিলেন ২টি করে উইকেট।

ইংলিশদের এই রানের জবাবে খেলতে নেমে ইংলিশ পেসার মার্ক উড এবং স্পিনার মঈন আলির সামনে দাঁড়াতেই পারেনি উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানেরা। ফলে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৫৪ রানে গুঁটিয়ে যেতে হয় তাদের। ৪১ রানে ৫ উইকেট তুলে নেন উড।

অপরদিকে ৩৬ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়ে তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন মঈন। ইংলিশদের বোলিং তোপে সর্বোচ্চ ৪১ রান করতে পেরেছিলেন শুধু ওপেনার জন ক্যাম্পবেল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান এসেছে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান শেন ডওরিচের ব্যাট থেকে। উইন্ডিজরা ১৫৪ রানে অলআউট হওয়ায় ১৪২ রানের লিড পেয়েছিলো ইংল্যান্ড। এবার সেই লিডকে বাড়িয়ে চারশঊর্ধ্বতে নিয়ে গিয়েছে তারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত