প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সরকারকে দেশ ও নাগরিক উন্নয়নের সাথে পরিবেশের উন্নয়নের কথাও ভাবতে হবে, বললেন সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান

সৌরভ নূর : প্রতি বছরই বিভিন্ন সংস্থার প্রকাশিত প্রতিবেদনে প্রকাশ পাওয়া পরিবেশ বিষয়ক র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশকে ক্রমেই নিচের দিকে নামতে দেখা যাচ্ছে। অথচ এ ব্যাপারে সরকারের কোনো প্রতিক্রিয়া কিংবা উদ্যোগ গ্রহণ করতে দেখা যাচ্ছে না। সরকার সেদিকে নজর না দিয়ে আপেক্ষিক উন্নয়ন নিয়ে ব্যস্ত আছে। সময় এসেছে, সরকারকে এখন দেশ ও নাগরিক উন্নয়নের সাথে পরিবেশের উন্নয়কে সম্পৃক্ত করতে হবে। সর্বোপরি আমাদের টেকসই উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যেতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান। পরিবেশ দূষণে বাংলাদেশের টানা অবনতি প্রসঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন।
এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, নিরাপদ পরিবেশ রক্ষার অঙ্গীকার থেকে সরকার অনেকটা সরে এসেছে। সরকার এখন উন্নয়নের তা-বের মধ্যে রয়েছে এবং সরকার যেটাকে উন্নয়ন বলছে সেটা আসলে সরকারি উন্নয়ন এই উন্নয়নের সাথে জনগণ সম্পৃক্ত হচ্ছে না। সরকার যেটাকে বিবেচনা করছে সেটাকেই উন্নয়ন বলে চালিয়ে দিচ্ছে সেটা জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাক বা না পাক।
অন্যদিকে ক্ষমতা ধরে রাখতে ব্যস্ত সরকারকে অনেককেই খুশি রাখতে হচ্ছে, ফলে এমন অনেক প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করতে হচ্ছে যা পরিবেশের বিপর্যয় ঘটাচ্ছে। যেমন সুন্দরবন উজাড় করে বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরির প্রকল্প। এসব প্রক্রিয়ার জাঁতাকলে পড়ে সরকার পরিবেশকে আন্ডার মাইন্ড করে চলেছে এবং পরিবেশ রক্ষার অঙ্গীকার থেকে অনেক দূরে সরে এসেছে। একইসাথে আরও কিছু ভ্রান্ত ধারণা প্রচার করা হচ্ছে। যেমন বলা হচ্ছে, আমরা প্রথমে চীনের মতো হবো তারপর পরিবেশ রক্ষায় মনোযোগী হবো। প্রকৃত অর্থে চীন যখন উন্নয়নের মাঝে ছিলো তখন তারা পরিবেশের বিপর্যয়ের কথা জানতো না, সেসময় তাদের হাতে বিকল্প কোনো পন্থাও ছিলো না। কিন্তু এখন আমাদের হাতে নানা ধরনের বিকল্প উপায় রয়েছে তবে কেন আমরা কাজে লাগাবো না।

সর্বাধিক পঠিত