প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাতালোনিয়ার ১২ স্বাধীনতাকামী নেতার বিচার শুরু করেছে স্পেন

লিহান লিমা: কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী ১২ নেতার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহ ও রাষ্ট্রীয় তহবিলের অপব্যবহারের অভিযোগ এনে বিচার শুরু করেছে স্পেনের সুপ্রিমকোর্ট। ২০১৭ সালের ১ অক্টোবর গণভোটে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয় কাতালোনিয়া। যা অসাংবিধানিক বলে ঘোষণা করে স্পেনের আদালত। গার্ডিয়ান, বিবিসি, ওয়াশিংটন পোস্ট

এই ১২ জনের মধ্যে ৯ জনের ওপর দেশদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়েছে। যাদের মধ্যে রয়েছেন কাতালোনিয়ার সাবেক ভাইস-প্রেসিডেন্ট ওরিওল জাঙ্কুয়ার, কাতালানের পার্লামেন্টের সাবেক স্পিকার কার্মে ফোরকাদেল, স্থানীয় পর্যায়ে প্রভাববিস্তারকারী দুই নেতা জোরদি কুইস্কাট এবং জোরদি সেনচেজ। দোষী প্রমাণিত হলে তাদের ২৫ বছরের কারাদ- দেয়া হবে। বাকি তিন জনের ওপর রাষ্ট্রীয় তহবিলের অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

তবে এদের মধ্যে স্বাধীনতার গণভোটে নেতৃত্ব দেয়া সাবেক কাতালানের প্রেসিডেন্ট কার্লোস পুজদেমন নেই। ব্রাসেলসে স্বেচ্ছা নির্বাসনে রয়েছেন তিনি। আদালতের এই বিচার নিয়ে পুজদেমন বলেন, ‘এটি স্পেনের বিচার বিভাগ ও গণতন্ত্রের জন্য একটি বড় পরিক্ষা। কারণ এই নেতারা সম্পূর্ণ নির্দোষ।’ যদিও স্পেনের সরকার বলছে, পুরো বিচার প্রক্রিয়াই নিরপেক্ষভাবে হচ্ছে, বিশ্ব দেখছে। এর আগে নভেম্বরে ১০০জন আইনি বিশেষজ্ঞ এক খোলা চিঠিতে কাতালোনিয়ার মামলায় দেশদ্রোহীতার অভিযোগ আনার তীব্র নিন্দা জানান। ইতোমধ্যেই ১০ মাস কারাগারে পার করেছেন এই ১২ নেতা।
এদিকে সোমবার বিচারের আগে হাজারো ডানপন্থী ও তাদের সমর্থক মাদ্রিদের রাস্তায় জড়ো হয়ে ঐক্যবদ্ধ স্পেনের সমর্থনে বিক্ষোভ করে। অন্যদিকে কাতালোনিয়ার নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পদক্ষেপ নিয়ে বিরোধীদের চাপে রয়েছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো শেনচেজ। বুধবার পার্লামেন্টে বাজেট বিল পাশ করার কথা রয়েছে শেনচেজ সরকারের। কাতালোনিয়ার আইনপ্রণেতারাসহ যদি সংখ্যাগরিষ্ঠই এই বিল প্রত্যাখ্যান করেন তবে আগাম নির্বাচন দিতে হতে পারে শেনচেজের সোশালিস্ট পার্টিকে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত