প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অভিবাসীদের চিকিৎসা আটকে দেয়ার বিলে হারল অস্ট্রেলিয়ার সরকার

লিহান লিমা: গত ৮০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবার পার্লামেন্টের নি¤œকক্ষে নিজেদের প্রণীত আইনে হেরে গেলো অস্ট্রেলিয়ার সরকার। মঙ্গলবার সরকারী দলের এমপিরাসহ বিরোধীরা দেশটিতে আগত অসুস্থ শরণার্থীদের চিকিৎসা সহায়তা দেয়ার বিলটি বিপুল ভোটে সমর্থন করে। বিবিসি, আল-জাজিরা

২০১২ সাল থেকেই অস্ট্রেলিয়া দেশটিতে আগত শরণার্থী ও অভিবাসন প্রত্যাশীদের নাউরু ও পাপুয়া নিউগিনির মানুস দ্বীপের ডিটেনশন সেন্টারে পাঠিয়ে দেয়। সমালোচকরা বলছেন, ডিটেনশন সেন্টারে পরিবেশ শিশুদের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ডাক্তাররাও দ্বীপের চিকিৎসা সুবিধা নিয়ে বারবার সতর্ক করেছেন। জাতিসংঘ ক্যাম্পের পরিবেশকে ‘অমানবিক’ বলে আখ্যায়িত করেছে। অস্ট্রেলিয়ার সরকার এই নীতির সমর্থনের পক্ষে বলছে, তারা চায় এর মাধ্যমে যেন ভয়ঙ্কর সাগর পাড়ি দেয়া বন্ধ হয়।

বিরোধী দলের নেতা বিল শর্টেন টুইটারে বলেন, ‘হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে পাশ হওয়া এই বিলের ফলে অস্ট্রেলিয়ায় আসা অভিবাসীরা এখন থেকে প্রয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন। অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকদের জানা প্রয়োজন আমাদের সীমান্ত নিরাপত্তার সঙ্গে সঙ্গে মানবতাবোধ রয়েছে।’ এই বিলের ফলে ডাক্তাররা শরণার্থীদের নাউরু ও মানুস থেকে চিকিৎসার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় পাঠাতে পারবেন। তবে আইনে পরিণত হওয়ার আগে এই বিলকে অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে পাশ হতে হবে।

এছাড়া এই বিলটি দেশটিতে রাজনৈতিভাবে ও গুরুত্বপূর্ণ। এর আগে ১৯৪১ সালে নি¤œকক্ষে বাজেট ভোটে হারার পর পদত্যাগ করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী আর্থার ফাদেন। মঙ্গলবার এই হার প্রধানমন্ত্রী মরিসনের ক্ষমতায় থাকা নিয়ে সন্দেহ জাগাচ্ছে। এর আগে গত বছরের নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয় তার দল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত