প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমাদের যা করণীয় আছে আমরা করব : ড. কামাল

শিমুল মাহমুদ: গণফোরামের সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ৩০ তারিখে যে নির্বাচন হয়েছে, সেটিকে অনেকে প্রহসন বলেছেন, নাটক বলেছেন‌। ১৬ কোটি মানুষের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে সংবিধান লঙ্ঘন করা হচ্ছে। এবং আমি বিশ্বাস করি ১৬ কোটি মানুষ এটা মেনে নেবে না। এবং আমাদের যা করণীয় আছে আমরা করব।

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রয়ারী) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গণ ফোরামের আয়োজনে গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর পুত্র প্রয়াত রাশেদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুতে আয়োজিত শোক সভায় তিনি এসব বলেন।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র আমাদের সংবিধানের মূলনীতি। সে আন্দোলন আমরা করে আসছি। ৩০ তারিখের যে নির্বাচন হয়েছে, সেটিকে অনেকে প্রহসন বলেছেন, নাটক বলেছেন‌। মানুষের প্রতি ভাওতাবাজি করা হয়েছে। কেন এগুলো করা হয়েছে? আবার পরদিন সকালে বলেন, আমি তো পাঁচ বছরের জন্য এসে গেছি।

আমরা মনে করি ১৬ কোটি মানুষকে অপমান করা হয়েছে। ১৬ কোটি মানুষের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে তাদের এভাবে বলা, এটি সংবিধান লঙ্ঘন করা হচ্ছে। এবং আমি বিশ্বাস করি ১৬ কোটি মানুষ এটা মেনে নেবে না। এবং আমাদের যা করণীয় আছে আমরা করব’।

জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, যারা কারাগারে আছে তাদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া মুক্ত করা যাবে না।  আজকে যারা ক্ষমতায় আছে তাদের মধ্যে সেই মনুষত্ব নেই।

তিনি বলেন, ১৬ কোটি মানুষের  ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে নিয়েছে কেউ প্রতিবাদ করল না। এটা কি শুধু কোন রাজনৈতিক নেতা করবে, কোন রাজনৈতিক দল করবে? এটা হয় না। আজকে ১৬ কোটি মানুষের অধিকার কেড়ে নিলো কেউ প্রতিবাদ করলো না। আজকে বাংলাদেশের লক্ষ ছেলে জেলে আছে। হাজার হাজার মামলা। বিনা  অপরাধে বিনা কারণে বছরের পর বছর জেলে আছে। গণতন্ত্র হোক বা না হোক আমি জানি না।  ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া ওদেরকে কারাগার থেকে মুক্ত করা যাবে। না এটা নিশ্চিত।  আজকে যারা ক্ষমতায় আছে এদের মধ্যে মানবিক মূল্যবোধ নাই। মানুষের প্রতি তাদের কোন ভালোবাসা নাই। তাই দয়া দাক্ষিণ্য করে এদের মুক্ত করা যাবে এটা বিশ্বাস করি না।

তিনি বলেন, মানুষের এখন অর্থনীতিক গুণগত পরিবর্তন হয়েছে। ‘দ্যা ওয়ান টু লোস’ তারা অর্জন করতে চাই। কিন্তু বিসর্জন দিতে চায় না। ত্যাগ স্বীকার করতে রাজি না। এখন প্রত্যাকের টাকা পয়সা হয়েছে,  গাড়ি বাড়ি সব হয়েছে। আমার অনুরোধ এক লক্ষ ছেলে মেয়ে জেলে আছে তাদের মা বাবা বাচবে কিভাবে। গণতন্ত্র হোক বা না হোক আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে এদের জন্য হলেও আন্দোলন গড়ে তুলি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত