প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের ক্যান্টিনে ছাত্রীর ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে
শিক্ষা সফরে আসা আনন্দ মোহন কলেজের ছাত্রদের সাথে অপ্রীতিকর ঘটনায় ভাঙচুর

বগুড়া প্রতিনিধি: মোবাইলে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে বগুড়া সরকারী শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আকবরিয়া ক্যান্টিনে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছে খেতে আসা ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজের ছাত্ররা। এঘটনাকে কেন্দ্র করে গোটা শজিমেক কলেজ হাসপাতাল রণক্ষেত্রে পরিণত হয় ।

জানা গেছে, সোমবার দুপুরে শিক্ষা সফরে আসা ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজের একদল ছাত্র ছাত্রী তাদের পূর্বচুক্তি মোতাবেক দুপুরের খাবার জন্য বগুড়া সরকারী জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় আকবরিয়া গ্রুপের আকবরিয়া ক্যন্টিনে যায়।

দুপুর আনুমানিক দেড়টার দিকে সেখানে আগত শিক্ষা সফরে আসা বেশ কয়েক জন ছাত্র-ছাত্রী খেতে বসে। খাওয়া দাওয়ার এক পর্যায়ে সেখানে কর্তব্যরত ২জন হোটেল ওয়েটার সেখানে আগতদের ছবি মোবাইলে ধারন করলে বিপত্তির সৃষ্টি হয়। সফরে আসা কয়েকজন ছাত্র এর ঘোড় বিরোধীতা করে। এতে ওয়েটাররা নিজের ভুল স্বিকার করে ধারনকৃত ছবি মুছে দিতে চাইলে সফরকারী ছাত্রদের বেশ কয়েকজন উত্তেজিত হয়ে তাদের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করে ছাত্রীদের ছবি কেন মোবাইলে ধারন করা হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে সেখানে ক্যান্টিনে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর তান্ডব চালায় ।

এক পর্যায়ে তারা সেখনকার হোটেল ম্যানেজমেন্ট ও ওয়েটারদের উপর হামলা চালিয়ে বেদড়ক ভাবে মারধর করে। সফররত ছাত্রদের বেপরোয়া হামলা ও ব্যাপক ভংচুর ঘটনায় সেখানে টান টান উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ছাত্রদের হামলার মুখে হোটেল ম্যানেজম্যান্ট এবং সকল স্টাফরা সেখান থেকে পালিয়ে গেলে তাদের ধাওয়া করা হয়। এসময় গোটা হাসপাতাল রনক্ষেত্রে পরিনত হয়।

বহিরাগতদের হামলা আশংকা করে গোটা হাসাপাতালে ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। এঘটনায় দিশেহারা হয়ে পড়েন হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার , রোগী ও তাদের আত্নীয় স্বজনরা। এঘটনায় বেশ কয়েকজন হোটেল স্টাফ আহত হয় ।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ বাহিনীর শতাধিক সদস্য সেখানে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় পুলিশের উর্ধতনরা ঘটনাস্থল পরিদর্শেন করেণ।

এবিষয়ে বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি সার্বিক) এমএম বদিউজ্জামান ঘটনা নিশ্চিত করেন এবং উভয় পক্ষের দায়িত্বশীলদের এক সমঝোতা বৈঠকে ঘটনার মিমাংসা করা হয়েছে বলে জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত