প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিচারব্যবস্থার সকল ক্ষেত্রে মাধ্যম হওয়া উচিত বাংলা, বললেন ব্যারিস্টার মৌসুমী কবিতা

জুয়েল খান : সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের আইনজীবী ব্যারিস্টার মৌসুমী কবিতা বলেছেন, বাংলাদেশের সম্পূর্ণ বিচার ব্যবস্থাকে বাংলায় করা উচিত। তবে বাইরের কোনো দেশের সাথে আমাদের কোনো বিচার কার্যের প্রয়োজন হলে সেক্ষেত্রে সেই ভাষার অনুবাদক নিয়োগ করা যেতে পারে।
এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি আরো বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হক একটা সময় বাংলায় রায় দেয়া শুরু করেছিলেন। এমন কোনো বিধান নেই যে রায় ইংরেজিতেই দিতে হবে। কিছু ক্ষেত্রে বাংলার ব্যবহার করে কিছু ক্ষেত্রে করে না। তিনি বলেন, আদালতের কার্যক্রম বাংলায় হওয়া উচিত কারণ আমরা এই বাংলা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছি। আমাদের বাংলা ভাষার সম্মানে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। বাংলাদেশের আদালতগুলো সাক্ষীর সাক্ষ্য নেয়ার ক্ষেত্রে বাংলায় নেয়া হয় কিন্তু মামলার রায় ইংরেজিতে হওয়ার ফলে অনেক বিচারপ্রার্থী বোঝেন না যে, রায় তার পক্ষে গেছে কিংবা বিপক্ষে গেছে কারণ তারা উচ্চ শিক্ষিত নয় বা একাডেমিক শিক্ষা পায়নি । ভাষা সকল মানুষের প্রতিনিধিত্ব করে। এখানে উচ্চ শিক্ষিত মানুষ সুবিধা পাবে আর অল্প শিক্ষিত মানুষ বুঝবে না এটা হতে পারে না। তিনি আরো বলেন, অল্প শিক্ষিত বিচারপ্রার্থীরা ইংরেজিতে রায় বুঝতে পারেন না, ফলে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে আপিল কোর্টে গিয়ে কোন গ্রাউন্ডে আপিল করবেন সেটা তারা বুঝতে পারেন না। এখানেই তারা ন্যায়বিচার পাচ্ছেন না। তাদের প্রতি সুপ্রসন্ন আচরণ করর হচ্ছেন না, তারা এক ধরনের বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন।
তিনি জানান, যারা আদালতে প্র্যাকটিস করেন এমন অনেক আইনজীবী আছেন যারা হয়তো শতভাগ ইংরেজি বুঝছেন না, ফলে এক ধরনের গোঁজামিল দিয়ে চলতে হচ্ছে। অনেক বিষয় আছে যেগুলো আমাদের কাছে বাংলায় যেভাবে আসে, ইংরেজিতে সেভাবে আসে না বা সেভাবে বলা যায় না। কারণ আমরা বাঙালি, আমাদের মাতৃভাষা বাংলা। এই ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্য আমার রক্ত দিয়েছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত