প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিজ্ঞানীদের গবেষণায় উদ্ভাবিত প্রযুক্তি চাষিরা কিভাবে নিচ্ছে তা খতিয়ে দেখার সময় এসেছে বললেন কৃষি মন্ত্রী

মতিনুজ্জামান মিটু : বিজ্ঞানীদের বেতন বেড়েছে, আরো সুযোগ বাড়বে। এই সঙ্গে বিজ্ঞানীরা কে কিভাবে কাজ করে কতটুকু আউটপুট দিচ্ছেন তা মূল্যায়নের প্রক্রিয়া খুঁজে বের করা হবে। বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি শুধু হিসেবে থাকলে হবে না মাঠে কৃষকের মনের মাঝেও থাকতে হবে। চাষিরা যে প্রযুক্তি গ্রহন করবে না তার কোনো মূল্য নেই।
রবিবার(১০ ফেব্রæয়ারী) গাজীপুরের বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনে ২ দিনের বারি প্রযুক্তি প্রদর্শনী ২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রী আরো বললেন, দেশের গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলোর মূখ্য পদে বিজ্ঞানীরা না থাকলে কাংখিত সাফল্য ধরা দেবে না। যে প্রতিষ্ঠানে একসময় ড. কুদরত ই খোদার মতো খ্যাতিমান বিজ্ঞানী ছিলো সেই সাইন্স ল্যাবের ডিজি একজন নন বিজ্ঞানী দিয়ে চলতে পারেনা।
কৃষি মন্ত্রী বলেন, সময়ের চাহিদা পূরণে বাণিজ্যিক কৃষির কোনো বিকল্প নেই। দেশে বাণিজ্যিক কৃষির প্রসারের জন্য লাভ লোকসান হিসেব করে চাষের পরামর্শ দিতে হবে। চাহিদা না থাকায় আগে ভূট্টা আমাদের দেশে চাষের চল ছিলো না। এখন পোল্ট্রি শিল্প বিকাশের কারণে দেশে প্রতিবছর ৪০ লাখ টন ভূট্টা আমদানী করতে হয়। আগামী ৩ বছরের মধ্যে দেশকে ভূট্টায় স্বয়ং সম্পূর্ণ করতে হবে। এর পর এক টন ভূট্টাও আমদানী হবে না।
তিনি বলেন, কৃষি সাফল্যে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের বিম্ময়। বিদেশীরা এখন বাংলাদেশের কৃষির ইর্ষনীয় উন্নয়নের গল্প শুনতে আসেন। এতে আমাদের দায়বোধ আরো বেড়েছে। এই বাস্তবতায় আমাদেরকে উন্নয়নের পথে আরো দ্রæত গতিতে এগিয়ে যেতে হবে।
চলমান কৃষি শ্রমিক সংকট মোকাবেলা করে উৎপাদন দিগুন করে কৃষি বিপ্লবকে বেগবান করতে যন্ত্রপাতির ব্যবহার বাড়াতে হবে। ফসলের সংগ্রহত্তোর ক্ষতি এড়াতে উৎপাদিত শস্য প্রক্রিয়াজাত করার প্রযুক্তি ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। মূল্য সংযোজনের মাধ্যমে কৃষকের পণ্যের প্রকৃত দাম নিশ্চিত করার জোর তাগিদ দিলেন দেশের প্রথম কৃষি বিজ্ঞানী মন্ত্রী।
বারি’র মহাপরিচালক ড.আবুল কালাম আযাদ এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, জাতীয় সংসদের সদস্য কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান। সম্মাণিত অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের( প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক (অব.) ও এমেরিটাস সায়েন্টিস্ট এনএআরএস ড. কাজী এম বদরুদ্দোজা। দিনের শুরুতে মন্ত্রী বারি’র ক্যাম্পসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।

সর্বাধিক পঠিত