প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংসদে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানালেন, ‘সরকারি এক চতুর্থাংশ পদই শূণ্য’

আসাদুজ্জামান সম্রাট : সরকারি চাকরিতে থাকা পদের প্রায় এক চতুর্থাংশই শুণ্য পড়ে আছে। বর্তমানে সরকারি চাকরিতে মোট পদের সংখ্যা প্রায় ১৫ লাখ। এর মধ্যে প্রায় সাড়ে তিন লাখ পদই শুণ্য রয়েছে বলে সংসদকে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

তিনি বলেছেন, সরকারের বিভিন্ন অফিস ও মন্ত্রণালয়ে তিন লাখ ৩৬ হাজার ৭৪৬টি সরকারি পদ শ‚ন্য পদ। এর মধ্যে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে শ‚ন্য রয়েছে তিন হাজার ৮৫৪টি পদ। এসব শ‚ন্য পদ প‚রণের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

রোববার জাতীয় সংসদে মো. আনোয়ারুল আজীম (আনার) ও শামসুল হক টুকুর পৃথক দুইটি তারকাচিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী। এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, ৩৭তম বিসিএসের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাডারের এক হাজার ২৮৯টি পদে নিয়োগের লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন সুপারিশ করেছে। সুপারিশকৃত প্রার্থীদের প্রাক-চাকরির বৃত্তান্ত যাচাই করার জন্য যথাযথ সংস্থাকে অনুরোধ করা হয়েছে। প্রাক-চাকরি যাচাই প্রতিবেদন, মুক্তিযোদ্ধা সনদ যাচাই ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়ার পর চ‚ড়ান্ত নিয়োগ দেয়া হবে। তিনি বলেন, ৩৮, ৩৯ ও ৪০তম বিসিএসের মাধ্যমে যথাক্রমে দুই হাজার ২৪টি, চার হাজার ৭৯২টি ও এক হাজার ৯০৩টিসহ মোট আট হাজার ৭১৯টি বিভিন্ন ক্যাডারের শ‚ন্য পদে নিয়োগের কাজ চলছে।

ফরহাদ হোসেন বলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়-বিভাগ এবং এর অধীন সংস্থার চাহিদার প্রেক্ষিতে সরকারি কর্ম কমিশনের মাধ্যমে ১০ থেকে ১২ গ্রেডে (দ্বিতীয় শ্রেণি) শ‚ন্য পদে জনবল নিয়োগ করা হয়। ১৩ থেকে ২০ অর্থাৎ তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণি পদে স্ব স্ব মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা নিয়োগ বিধি অনুযায়ী করে থাকে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগ ধারাবাহিকভাবে সকল মন্ত্রণালয়র চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন পদ সৃজনের সম্মতি প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে মন্ত্রণালয় বা বিভাগ নিয়োগবিধি অনুযায়ী ওই পদে জনবল নিয়োগের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করে থাকে। আদালতের কার্যক্রম শেষ না হওয়া এবং পদোন্নতিযোগ্য প্রার্থী না পাওয়ায় কিছু শ‚ন্য পদ প‚রণ করা যায় না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত