প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ দলকে ড্যানি মরিসনের সতর্কবার্তা

স্পোর্টস ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজের আগে বাংলাদেশকে সতর্কবার্তা দিয়েছেন সাবেক কিউই ক্রিকেটার এবং জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ড্যানি মরিসন। তিনি জানিয়েছেন, পাঁচ দিনের ক্রিকেটে ভালো করতে হলে মানসিকতায় পরিবর্তন আনতে হবে বাংলাদেশকে।

প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট শিকার করার লক্ষ্য নিয়ে খেলার কথা উল্লেখ করেছেন এই কিউই। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন এবং উইকেট এক্ষেত্রে বাংলাদেশের কাজ কঠিন করে তুলবে।

বিপিএলে ধারাভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করার ফাঁকে ক্রিকফ্রেঞ্জিকে মরিসন বলেছেন, তাদের (বাংলাদেশের) ব্যাটিং ভালো, তবে বোলিংয়ে ২০ উইকেট নেয়ার সামর্থ্য থাকতে হবে তাদের। খেলার মধ্যে থাকতে হলে এটাই চ্যালেঞ্জের হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন অনেকটা ইংলিশদের মতোই। গরম কালের আবহাওয়া ভালো থাকে।

বাকি সময় কেমন থাকবে সেটি আসলে কেউ বলতে পারে না। তারা কি মেঘাচ্ছন্ন কিংবা অন্ধকার আবহাওয়াতে খেলবে কিনা সেটি অনিশ্চিত। বাংলাদেশ খুশি হবে যদি তারা ফ্ল্যাট উইকেটে খেলতে পারে। তেমনটি হলে পার্থক্য গড়তে পারবে তারা।
নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সর্বশেষ ২০১৭ সালে সিরিজ খেলেছিলো বাংলাদেশ। সেই সফরে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে দারুণ ব্যাটিং করেছিলো টাইগাররা। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ৫৯৫ রানের বিশাল পুঁজি দাঁড়া করিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেছিলো বাংলাদেশ।

কিন্তু এরপরও দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যর্থতায় ম্যাচটি ৭ উইকেটে হেরেছিলো তারা। ১৬০ রানে অলআউট হওয়া বাংলাদেশ কিউইদের সামনে লক্ষ্য ছুঁড়ে দিতে পেরেছিলো মাত্র ২১৭ রানের।
কিন্তু শক্তিশালী কিউইদের কাছে এই লক্ষ্য ছিলো একেবারেই মামুলি। সুতরাং দারুণভাবে শুরু করার পরেও পরাজিত দলের কাতারে থেকে ম্যাচটি শেষ করতে হয়েছিলো বাংলাদেশকে।

সেই ম্যাচটির স্মৃতিচারণ করে মরিসন বাংলাদেশের ঘাটতিগুলো দেখিয়ে দিয়েছেন ক্রিকফ্রেঞ্জিকে। টেস্টের মানসিকতা প্রকটভাবে অনুপস্থিত ছিলো সেবার জানিয়ে তিনি বলেছেন, তারা (বাংলাদেশ) প্রায় ৬০০ এর কাছাকাছি রান করেছিলো, কিন্তু এরপরেও ম্যাচটি হেরেছে। পাঁচ দিনের ক্রিকেটে যে মানসিকতা প্রয়োজন সেটা অনুপস্থিত ছিলো। এটাই আসলে হতাশাজনক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত