প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তিকেই প্রমাণ করতে হবে সে ধর্ষণ করেনি, বললেন মালেকা বানু

জুয়েল খান : বাংলাদেশ মহিলা পরীষদের সাধারণ সম্পাদক ও নারী নেত্রী মালেকা বানু বলেছেন, আইনের পরিবর্তন করে যে অপরাধ করেছে তাকেই প্রমাণ করতে হবে যে, সে অপরাধ করেনি। কারণ নারী ধর্ষণের শিকার হলো আবার তাকেই আইনের মাধ্যমে প্রমাণ করতে হবে যে, আমাকে ধষর্ণ করা হয়েছে, এটা কোনো সমাধান হতে পারে না।
এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি আরো বলেন, ধর্ষণ একটা সামাজিক ব্যাধি। ধর্ষণরোধে সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। ধর্ষণরোধে অপরাধীকে পারিবারিক, সামাজিক এবং রাষ্ট্রীয় কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেয়া যাবে না।
তিনি বলেন, কোনো ধর্ষণের ঘটনা ঘটে তাহলে সেটাকে গোপন না রেখে প্রতিরোধ করতে হবে। ধর্ষণের শিকার নারীকেই আমরা সামাজিকভাবে অপরাধীর দৃষ্টিতে দেখি, তার দোষ খুঁজতে থাকি। যেমন তার পোশাক-আশাক, চলাফেরা এবং তার স্বাধীনতাকেই দায়ী কারা হয়। কারণ তখন সে কী ধরনের পোশাক পরেছিলো, সে রাতে বেরিয়েছিলো কিনা, একা রেরিয়েছিলো কিনা বা সাথে কেউ ছিলো কিনা। আসলে ধর্ষণ যে একটা অপরাধ, আমরা সেই অপরাধীর দিকে ঘৃণার চোখে না তাকিয়ে ধর্ষণের শিকার মেয়েটির দিকে বড় বড় করে তাকানোই আমাদের সমাজের রীতি। সামাজিকভাবে আমাদের এই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন আনতে হবে।
তিনি জানান, সামাজিকভাবে ধর্ষণকারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা, সাক্ষী দেয়া, ধর্ষককে ধরিয়ে দেয়া, প্রতিরোধ গড়ে তোলা এবং সর্বোপরি তাকে সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে। নারীকে কখনো ভোগ্য পণ্য হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না আর এই শিক্ষা পারিবারিকভাবে দিতে হবে।

সর্বাধিক পঠিত