প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আলুর বাজারদর কম দুশ্চিন্তায় মুন্সীগঞ্জের কৃষক

জাবের হোসেন: আলুর জন্য খ্যাত মুন্সীগঞ্জ। এবার মোট জমির প্রায় ৮৫ ভাগ এলাকায় আলুর আবাদ হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে সাড়ে ১২ লাখ টন। সবকিছু ঠিক থাকলে কয়েক দিনের মধ্যে তোলা হবে নতুন আলু। যা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে সরবরাহ করা হবে দেশের বিভিন্ন স্থানে। বিদেশেও কদর রয়েছে মুন্সীগঞ্জের আলুর। আবহওয়া অনুকূলে থাকায় এবারো আলুর বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষক ও কৃষি কর্মকর্তা। তবে গত বছরের আলুর বাজার মূল্য কম থাকায় কিছুটা চিন্তিত কৃষকরা। বিদেশে রপ্তানি বাড়ানো গেলে আলুর আবাদ নিয়ে দুশ্চিন্তার অবসান হবে বলে মনে করনে মুন্সিগঞ্জের কৃষকরা। চ্যানেল টুয়েন্টি ফোর

কৃষকরা বলেন, যদি এবছর আলুতে পয়সা না পাই তাহলে আমাদের দেশ ছাড়তে হবে। সরকার যদি আলু বিদেশে পাঠাতে না পারে তাহলে আমাদের এবারো অনেক লোকসান হবে। তারা আরো বলেন, এবছর বৃষ্টি নাই তাই সেচে বেশি খরচ হয়েছে।

অনাবৃষ্টির কারণে এবার জমিতে সেচ দিতে হয়েছে কিছুটা বেশি। তাই বিঘা প্রতি খরচ বেড়েছে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা। মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তাদের সহায় না পাওয়ার আভিযোগ আছে।

জেলার ৬টি উপজেলার, ৩৮ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে এবছর আলু চাষ হয়েছে। যেখানে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে সাড়ে ১২ লাখ টন। গত বারের ন্যায় এবারো বাম্পার ফলনের আশা স্থানীয় কৃষি বিভাগের। তবে মাঠ পর্যায়ে অসহযোগিতার বিষয়টি মানতে নারাজ জেলা কৃষি কর্মকর্তার।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর উপ-পরিচালক মো.হুমায়ূন কবীর বলেন, যেখানে যার পরামর্শ দরকার আমরা দিয়ে যাচ্ছি। আলু তোলার মৌসুমে আমরা জেলা এবং উপজেলা অফিসারদের সব ধরনের ছুটি বন্ধ রেখেছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত