প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানুষ ইজতেমাকে মর্যাদার প্রতীক মনে করে, বললেন ফরিদ উদ্দীন মাসউদ

মারুফুল আলম : শোলাকিয়ার ইমাম ফরিদ উদ্দীন মাসউদ বলেছেন, বিশ্ব ইজতেমা বাংলাদেশের মানুষের জন্য একটি গৌরব। দেশের মানুষ ইজতেমাকে নিজেদের মর্যাদার প্রতীক বলে মনে করে। ইজতেমা শুধুমাত্র একটি ধর্মীয় আবেগের সম্পর্ক না। বিবিসি বাংলাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন, এটার সঙ্গে সামাজিক ও অর্থনৈতিক কিছু বিষয়ও আছে। বাংলাদেশের ট্যুরিজমের বড় একটি আয় এই ইজতেমাকে কেন্দ্র করেই আসে।

ফরিদ উদ্দীন মাসউদ বলেন, তাবলীগ জামাত যে পাকাপাকিভাবেই বিভক্তির পথে চলে যাচ্ছে, তা আমি মনে করি না। কিছুদিন আগে দুই পক্ষে অনাকাঙ্খিত দ্বন্দ্বের কারণে দুইজন শহীদ হয়েছেন। সেই রেশ এখনো রয়ে গেছে। তাবলীগ জামাতের মূল চেতনা হচ্ছে ভালবাসা ও সম্প্রীতি। সেই চেতনায় তারা ফিরে আসবে এবং ভবিষ্যতে একটি সমাধানের দিকে যাবে বলে বিশ্বাস করেন শোলাকিয়ার ইমাম।

তিনি বলেন, সাময়িক বিভক্তি ভাই-ভাইয়েও হয়, এটিই বাস্তবতা। কিন্তু আমার মনে হয় না যে, এটি স্থায়ী হবে। সমাধানের লক্ষণ ইতিমধ্যে দেখা যাচ্ছে। কয়দিন আগেও বসার জন্য তাবলীগের দুই পক্ষ প্রস্তুত ছিলো না, এখন তারা সমাধানের জন্য বসেছে এবং একজনের সঙ্গে অপরজন বুক মিলিয়েছে। শৃঙ্খলার পথে ফিরে আসার লক্ষ্যে দুই পক্ষের দুই জন নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

দুই পক্ষের কলহ-বিবাদের সংবাদ দেশে-বিদেশে সবখানেই পৌঁছে গেছে, এ পর্যায়ে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ইচ্ছুক মুসলিমরা কতটুকু উৎসাহ পাবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেখানে বিবাদ থাকে, সেখানে মানুষ যেতে ইচ্ছুক হয় না। এ বছর এর কিছুটা প্রভাব পড়বে। তবে ৪ দিনের ইজতেমা সফলভাবে করা গেলে সেটি পরবর্তীতে কেটে যাবে বলে বিশ্বাস করেন তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত