প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুমিল্লাবাসী ও জেলা পুলিশ পরিবারের অভিনন্দন
কুমিল্লা পুলিশ সুপারের চতুর্থবারের মত বিপিএম পদক লাভ

মাহফুজ নান্টু, কুমিল্লা: বীরত্ব, সাহসিকতা ও সেবার কৃতিত্বসরূপ চতুর্থ বারের মতো রাষ্ট্রীয় পদক বিপিএম (সেবা) পেয়েছেন কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। আজ সোমবার পুলিশ সদর দপ্তর রাজারবাগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইলামকে বিপিএম(বার),পিপিএম কে চতুর্থবারের মত এ পদক পরিয়ে দেন। এ খবরে কুমিল্লা জেলা পুলিশ পরিবার এবং কুমিল্লাবাসী পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামকে অভিনন্দন জানান।

সৈয়দ নুরুল ইসলাম সাহসিকতার জন্য ২০১১ সালে পি.পি.এম পদক, ২০১৩ ও ২০১৮ সালে বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ পদক বি.পি.এম পদক অর্জন করেন। সৈয়দ নুরুল ইসলাম ১৯৭১ সালের ১লা মার্চ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জের জালমাছমারি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা এবং বড় ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা। তার পিতা-বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম কশিমুদ্দীন মিঞা, মাতা- মরহুম গুলনাহার বেগম। চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ। বড় ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আলী হোসেন।

১৯৮৬ সালে লালমনিরহাট বাংলাদেশ রেলওয়ে চিলড্রেনপার্ক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান শাখা থেকে ১ম বিভাগে এস.এস.সি, ১৯৮৮ সালে রাজশাহী কলেজ থেকে ১ম বিভাগে এইচ.এস.সি, ১৯৯১ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে বিএসসি, ১৯৯৩ সালে এম.এস.সি পাস করেন। পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৭ সালে এম.এ.এস ডিগ্রী অর্জন করেন। ছাত্র জীবনে তিনি প্রগতিশীল ছাত্র রাজনীতি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।
সৈয়দ নুরুল ইসলাম ২০ তম বি.সি.এস এর মাধ্যমে ২০০১ সালে তিনি বাংলাদেশ পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালী থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার, জাতিসংঘের শান্তি রক্ষা মিশন, রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ও উপ-পুলিশ কমিশনার, নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার, উপ-পুলিশ কমিশনার ওয়ারী জোন, ডিএমপি, ঢাকা, বিশেষ পুলিশ সুপার (এস.বি) ঢাকা এবং পুলিশ সুপার ময়মনসিংহে অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। গত ১৪ আগস্ট কুমিল্লা জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার থাকাবস্থায় তিনি সাহসিকতার সাথে যুদ্ধাপরাধী মতিউর রহমান নিজামী, কামরুজ্জামান, এটিএম আজহারুল ইসলাম, কাদের মোল্লাকে গ্রেফতার করেন।

ইতোমধ্যে তিনি বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে ২০তম বিসিএস ফোরামের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। একজন সুদক্ষ সংগঠক এবং সুবক্তা হিসেবে তার সুখ্যাতি রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত