প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডিস ব্যবসা নিয়ে বিরোধ
বরিশালে হত্যাকান্ডের পরিকল্পনার রেকর্ডিং ফাঁস

খোকন আহম্মেদ হীরা,, বরিশাল : ডিস ব্যবসা নিয়ে সরকারী দলের দুই গ্রুপের মধ্যে চলমান বিরোধকে কেন্দ্র করে বরিশালের উত্তর জনপদের আগৈলঝাড়া ও গৌরনদী উপজেলার শান্ত পরিবেশ ক্রমেই অশান্ত হয়ে উঠেছে। গত ১০দিনে কয়েক দফা হামলা-পাল্টা হামলায় আহত হয়েছেন একজন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান, একজন পৌর কাউন্সিলর, একজন ইউপি সদস্যসহ সরকারী দলের প্রায় ২০ নেতাকর্মী। ভাংচুর করা হয়েছে দুটি বসত বাড়ি।

সূত্রমতে, এনিয়ে পরস্পর বিরোধী তিনটি মামলায় এ যাবত গ্রেফতার হয়েছেন উভয় গ্রুপের দুই ইউপি সদস্য, একজন স্বাস্থ্য সহকারীসহ ছয়জন। ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গৈলা ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জামাল গোমস্তার ডিস ব্যবসায় কেউ বাঁধার সৃষ্টি করলে তাকে মেরে ফেলার ষড়যন্ত্রের মোবাইল ফোনে কপোথকথনের রেকডিং সর্বত্র ভাইরাল হয়েছে। ফলে এনিয়ে যেকোন সময় দুই গ্রুপের মধ্যে বড়ধরনের সংঘাতে প্রাণহানীর আশংকা করছেন সচেতন এলাকাবাসী। ডিস লাইনের সংযোগ বিচ্ছিন্নসহ হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা এখন প্রতিনিয়ত লেগেই রয়েছে। এ কারণে দুই উপজেলার প্রায় দশ হাজার গ্রাহক টানা ২০দিন যাবত টেলিভিশন দেখতে পারছেন না। এছাড়া বন্ধ হয়ে গেছে মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদসহ পাঁচ শতাধিক গ্রাহকের ওয়াইফাই ইন্টারনেট সংযোগ। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী বিষয়টি দ্রুত নিস্পত্তির জন্য বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি’র হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী বন্দর ও গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডে দুটি ক্যাবল অপারেটরের কন্টোল রুম থেকে দীর্ঘদিন ধরে গৌরনদী, আগৈলঝাড়া, কালকিনি, মুলাদী ও উজিরপুরের আশিংক এলাকায় ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলো। সম্প্রতি সময়ে গৌরনদী বন্দরের কন্টোল রুম থেকে সংযোগ নিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জামাল গোমস্তা ও তার সহযোগিরা গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডের কন্টোল রুম থেকে সংযোগ নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করা যুবলীগ নেতা সলিল গুহ পিন্টু, মৃতুঞ্জয় সরকার, লক্ষণ দে, আগৈলঝাড়ার সেরাল গ্রামের মারুফ সেরনিয়াবাত ও নাসির সিপাহীর লাইনে ব্যবসা পরিচালনার জন্য নতুন লাইনের সংযোগ দিতে গেলে বিরোধের সৃষ্টি হয়। গত ১০ জানুয়ারি রাতে আগৈলঝাড়ার টেমার এলাকার পূর্বের সংযোগের তার কেটে স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর সেরালের বাড়ির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা। পরবর্তীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে একদিনের মধ্যেই এমপির বাড়ির সংযোগ দেয়া হয়।

সূত্রে আরও জানা গেছে, গত ২৯ জানুয়ারি বিকেলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জামাল গোমস্তা, সাবেক পৌর কাউন্সিলর ফিরোজ রহমানসহ তাদের সহযোগিরা আগৈলঝাড়ার পতিহার গ্রামের পূর্বের ডিস ব্যবসায়ী যুবলীগ নেতা মৃতুঞ্জয় সরকার ও লক্ষণ দে’র ডিস লাইনের তার কেটে দেয়। এসময় বাঁধা দেয়ায় জামাল গোমস্তার সমর্থকরা পতিহার গ্রামের লক্ষন দে’র বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে কল্পনা দে, কল্যানী কাপালী, কাঠমিস্ত্রি বিভূতি হালদার, বিপুল গাইনকে পিটিয়ে আহত করে। একইদিন রাতে প্রতিপক্ষ জামাল গোমস্তার লোকজনে সাবেক ইউপি সদস্য যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম দরবেশকে বিল্বগ্রাম বাজার এলাকায় বসে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এসময় উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষে জামাল গোমস্তা, ফিরোজ রহমান, মৃতুঞ্জয় সরকার, লক্ষণ দেসহ উভয় পক্ষের ছয় নেতাকর্মী আহত হয়। এ ঘটনায় আহত সাইফুল ইসলাম দরবেশের ভাই আনোয়ার হোসেন বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার এজাহারভূক্ত তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ঘটনার জেরধরে ৩ ফেব্রুয়ারী বিকেলে বিল্বগ্রাম এলাকায় বসে প্রতিপক্ষের লোকজনে জামাল গোমস্তার ভাতিজা রনি গোমস্তাা ও পলাশ পাল নামক এক যুবককে পিটিয়ে আহত করেছে।

অপরদিকে গৌরনদীর নলচিড়া বাজারের ডির ব্যবসায়ী ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য মোঃ মাসুদ মীরের সাথে নলচিড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য ও ইউপি সদস্য মাসুদ হোসেন মিলন এবং সরিকল ইউনিয়নের সদস্য রাজু খানের বিরোধ চলে আসছে। গত ২০ জানুয়ারি সকালে ১০/১২টি মোটরসাইকেলযোগে প্রতিপক্ষের ২৫/৩০ জন সমর্থকরা মাসুদ মীরের ডিস ব্যবসার প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। হামলাকারীরা জোরপূর্বক ওই প্রতিষ্ঠান থেকে মাসুদ মীরের ভাই গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য সহকারী মাসুম মীরকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে মাসুমকে বেধরক মারপিট করে গুরুতর আহত করে পকেটে ১২ পিস ইয়াবা দিয়ে পুলিশ কাছে সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনায় পৃথকভাবে দুইটি মামলা দায়েরের পর পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত