প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টেকনাফ স্থলবন্দরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫কোটি ৩৫লাখ ৮৫হাজার টাকার বেশী রাজস্ব আদায়

ফরহাদ আমিন, টেকনাফ(কক্সবাজার) : কক্সবাজারের টেকনাফে সীমান্ত বাণিজ্যে গত জানুয়ারি মাসে ২২কোটি ১০লাখ ৭৫হাজার টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে। তবে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫কোটি৩৫লাখ৮৫হাজার টাকার রাজস্ব বেশি আদায় করা হয়েছে।

ওই মাসে মায়ানমার পণ্য আমদানী স্বাভাবিক থাকায় রাজস্ব আদায়ও বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।

শুল্ক ষ্টেশন সূত্রে জানান, ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের জানুয়ারি মাসে ৫২৬ টি বিল অব এন্ট্রির মাধ্যমে ২২কোটি ১০লাখ ৭৫ হাজার টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে। এই শুল্ক ষ্টেশনে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) কর্তৃক এই মাসে ১৬কোটি৭৫লাখ টাকা মাসিক লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫কোটি৩৫লাখ ৮৫হাজার টাকা বেশি আদায় হয়েছে। এতে মায়ানমার থেকে পণ্য আমদানি করা হয় ৯৭কোটি ১লাখ টাকার।

অপরদিকে ৬৯টি বিল অব এক্সপোর্টের মাধ্যমে ২কোটি ৬০লাখ৫৫ হাজার ৬৮৩টাকার পণ্য মায়ানমারে রপ্তানি করা হয়েছে।

এছাড়া শাহপরীরদ্বীপ করিডোর দিয়ে ৩হাজার ৪৯১টি গরু,৪৪০টি মহিষ আমদানী করা হয়েছে। এতে ১৯লাখ সাড়ে ১৫হাজার ৫০০টাকা রাজস্ব আদায় করা সম্ভব হয় বলেও জানায়।

গত জানুয়ারি মাসে মায়ানমার থেকে পণ্য আমদানী স্বাভাবিক থাকায় রাজস্ব আদায়ও অনেক ভাল হয়েছে। তবে পণ্য আমদানী এভাবে থাকলে সীমান্ত বাণিজ্য ব্যবসায় আরো গতি বাড়বে বলে জানালেন বাণিজ্য ব্যবসায়ীরা।

টেকনাফ স্থল বন্দর শুল্ক কর্মকর্তা শংকর কুমার দাশ বলেন, গত জানুয়ারি মাসে মায়ানমার থেকে পণ্য আমদানি স্বাভাবিক থাকায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে রাজস্ব আদায়ও বেশি হয়েছে। তবে সীমান্ত বানিজ্যে চলমান অবস্থা বিরাজমান থাকলে রাজস্ব আদায়ও আরো বৃদ্ধি পাবে। সীমান্ত বাণিজ্যকে আরো গতিশীল করতে তিনি সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত