প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নীলফামারীতে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ছাত্রের পরীক্ষা দেয়া হলো-না,
প্রতিকার চেয়ে সুপারের কার্যালয় ঘেরাও !

নূর আলম সিদ্দিকী,নীলফামারী: নীলফামারীতে এক ছাত্র দাখিল পরীক্ষা দিতে না পাড়ায় মাদ্রাসা সুপারের কার্যালয় ঘেরাও করেছে অভিভাবক ও এলাকাবাসি। শনিবার দুপুরে নীলফামারী সদরে লক্ষীচাপ ডিডিএস দাখিল মাদ্রাসায় আব্দুল মান্নান নামে এক ছাত্র প্রবেশ পত্র না পাওয়ায় পরীক্ষা দিতে পারেনি। মাদ্রাসার ভূলের কারণে আরও একটি বছর তার জীবন থেকে হারিয়ে গেল। ছাত্রটির উজ্জিল ভবিষ্যৎ নষ্ঠ হওয়ার কারনে অভিভাবক ও এলাকাবাসি বিষয়টি জানতে চেয়ে দলবেঁধে সুপারের কার্যালয় ঘেরাও করে এবং এর সুষ্ঠ বিচার দাবি করেন।
সুপার না থাকায় সহ-কারী সুপার অভিভাবকদের তোপের মুখে পড়ে।

এ বিষয়টি নিয়ে সহকারী সুপার মাহমুদুল হাসান অভিভাবক ও এলাকাবাসিদের বলেন, বিষয়টি নিয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সমাধানের পথ খোজা হবে। মাদ্রাসার ছাত্র আব্দুল মান্নানের বাবা জিয়াউর রহমান বলেন, রেজিস্ট্রেশনের পাঁচ শত ও ফরম ফিলাপের জন্য দুই হাজার এবং সর্বশেষ প্রবেশ পত্রের জন্য চারশত টাকা মাদ্রাসার সারদের দিয়েছি এর পরেও আমি গরীব বাবা কষ্ঠ করে খেয়ে না খেয়ে টাকা যোগার করে দিয়েছি,ছেলে আমার লেখাপড়া শিখবে,সেই আশায়।ছেলেটা পরীক্ষা দিতে পারবেনা আমাকে জানিয়েছে পরীক্ষার একদিন আগে।এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।লক্ষীচাপ ডিডিএস দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র আব্দুল মান্নান বলেন,আমার রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৮৪৮৮৩৪৮৩৮।গত শুক্রবার প্রবেশ পত্র নিতে মাদ্রসায় গিয়ে জানতে পারি আমার নামের ভূল হয়েছে।স্যার বলে তোমার পরীক্ষা দেয়া হবেনা। স্যার আরও বলেন এবার পরীক্ষা না দিলে কোন ক্ষতি নেই।আমি বিষয়টি অভিভাবকদের জানাই। যাদের কারনে পরীক্ষা দিতে পারি নাই এবং একটি বছর হারিয়ে গেল তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

লক্ষীচাপ ডিডিএস দাখিল মাদ্রাসার সুপার আব্দুল হাকিমের সাথে বার বার মোবাইলে যোগাযোগ করেও তিনি ফোন তুলেননি।

এ বিষয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন,তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত