প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১০০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা রেকর্ড গড়লেন পাকিস্তানের সানা মীর

স্পোর্টস ডেস্ক : পাকিস্তান নারী জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সানা মীর । ২০০৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে অভিষেক হওয়ার পর থেকে দারুণ এক কীর্তিতে নাম লেখান তিনি। এশিয়া নারী কোনো ক্রিকেটার হিসেবে খেললেন ১০০ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। যেখানে পাকিস্তান খেলেছে ১০২ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে মাঠে নেমে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন সানা মীর।

আজ রোববার করাচিতে আগে ব্যাট করে পাকিস্তান ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫০ রান করে। ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ক্যারিবীয়ানরা তোলে ১৩৮ রান। ফলে, ১২ রানের জয় পায় পাকিস্তান। সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচে হারলেও শেষ ম্যাচে জিতলো পাকিস্তান। তাতে, ২-১ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে ক্যারিবীয়ান মেয়েরা।

প্রথম ম্যাচে সফরকারীরা জিতেছিল ৭১ রানে, সেটি ছিল পাকিস্তানের ১০০তম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। পরের ম্যাচটি টাই হলে এক ওভারের সুপার ওভারে গড়ায়। সেখানে জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ১২ রানের জয় পায় স্বাগতিক পাকিস্তান, যেটি আবার সানা মীরের ১০০তম ম্যাচ। নিজের অন্যরকম সেঞ্চুরির দিনে ব্যাট হাতে সানা মীর রানআউট হওয়ার আগে কোনো রান করতে পারেননি। তবে, বল হাতে ৪ ওভারে ২১ রান খরচায় তুলে নেন দুটি উইকেট।

৩৩ বছর বয়সী সানা মীর দারুণ এই অর্জনে উচ্ছ্বসিত। গণমাধ্যমে জানান, আমার কাছে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারা প্রতিটি ম্যাচই সমান। দেশের হয়ে প্রতিটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাওয়াটা অনেক বড় কিছু। শততম ম্যাচ খেলা সত্যিই দারুণ কিছু। বিশ্বের কাছে পাকিস্তানকে তুলে ধরার সুযোগ কখনোই নষ্ট করতে চাই না। নিজের সাধ্যের পুরোটাই দিতে চাই।

পাকিস্তান খেললো ১০২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। আর সানা মীর এশিয়ার কোনো নারী ক্রিকেটার হিসেবে ১০০তম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে শীর্ষে। মাত্র দুটি ম্যাচেই দেশের জার্সিতে মাঠে নামা হয়নি তার। ২০০৯ সালে নিজেদের মাটিতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ছিলেন সানা মীর। ইনজুরির কারণে দুটি ম্যাচেই শুধু খেলতে পারেননি।

পর সানা মীর খেলেছেন ১১২টি ম্যাচ। ২০০৯ সালে আইরিশদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পর খেললেন ১০০ ম্যাচ। ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে ১৫৫৮ রান করা সানা মীর বল হাতে নিয়েছেন ১৩৬ উইকেট। আর ক্রিকেটের ছোটো ফরম্যাটে ১০০ ম্যাচে ব্যাট হাতে ৮০ ইনিংসে ৭৯৬ রান করার পাশাপাশি বল হাতে নিয়েছেন ৮৪ উইকেট।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত