প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আপনার সামান্য সাহায্যে সুমাইয়া ফিরে পেতে পারে তার শ্রবণ শক্তি

জাহিদুল কবীর মিল্টন: যশোর সদর উপজেলার ফতেপুর গ্রামের কৃষক সলেমান গাজির একমাত্র ছেলে এনামুল হাসান। এনামুল পেশায় দিনমজুর। জায়গা জমি নেই বললেই চলে। পরের জমিতে কাজ করে কোন রকম সংসার চালায়। অভাব অনটনের সংসারে নুন আনতে যেন পানতা ফুরায়।

২০০৯ সালে বাঘারপাড়ার জামদিয়া গ্রামের মরিয়ম খাতুনের সাথে বিবাহ হয় তার। ২০১৪ সালে এনামুলের ঘর আলো করে জন্ম নেয় ফুটফুটে একটি মেয়ে। কিন্তু দুঃখের বিষয় মেয়েটি শ্রবণ প্রতিবন্ধি হয়েই দুনিয়ার মুখ দেখে। নাম রাখা হয় সুমাইয়া আক্তার। দিন যত যাচ্ছে বাবা মায়ের চিন্তা যেন ততই বাড়ছে। ছেলে সন্তান হলে হয়ত এতটা চিন্তা হতোনা। যেহেতু মেয়ে তার বয়স হলে তাকে বিয়ে দিতে হবে এমনটাই স্বাভাবিক। যার কারণেই যেন চিন্তার কোন অন্ত নেই। এর মধ্যেই ২০১৬ সালে তার ঘর আলো করে জন্ম নেই আরো একটি কণ্যা সন্তান। নাম রাখা হয় সামিয়া। সামিয়া আর সুমাইয়াকে নিয়ে যখন বাবা মায়ের সুখে শান্তিতে জীবন কাটানোর কথা। তখন সুমাইয়ার কথা ভেবে তাদের সব সুখ স্ম্লান হয়ে যায়। সুমাইয়ার বয়স এখন চার বছর। মেয়ে যত বড় হচ্ছে বাবা মায়ের দুঃশ্চিন্তা ততই বাড়ছে। দরিদ্র বাবা তার সাধ্য মত বিভিন্ন চিকৎসকের পরামর্শ নিয়েছেন। কিন্তু ঔষধের মাধ্যমে কোন কাজ হবে না বলে জানান চিকিৎসকেরা। অপারেশনের মাধ্যমে তার কানে শ্রবণযন্ত্র (কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট) স্থাপন করলে সে কানে শুনতে পারবে বলে জানান চিকৎসকরা। সে বর্তমানে ঢাকার বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। সেখানেই করতে হবে তার কানের অপরেশন। তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজন প্রচুর অর্থের। কিন্তু দিনমজুর পিতার পক্ষে চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনের ক্ষমতা না থাকায় সমাজের দানবীর সুধী সমাজ ও স্বজনদের আর্থিক সাহায্যে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন এনামুল।

যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি সাহায্য পাঠাতে চান তাহলে ০১৭২৫৭৮২৭৮৯ (বিকাশ) এই নাম্বার অথবা ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক যশোর শাখার হিসাব নম্বর ০১৪১১২২০০০০৪৬৩১ এ পাঠাতে পারেন। আপনাদের সামান্য সহযোগিতা সুমাইয়া ফিরে পেতে পারে তার শ্রবণ শক্তি। ফিরে আসতে পারে স্বাভাবিক জীবনে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত