প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুয়াকাটার ‘চর বিজয়ে’পাখি আর লাল কাঁকড়ায় মুগ্ধ পর্যটকরা

জাবের হোসেন: অসংখ্য পাখি আর লাল কাঁকড়ায় সমৃদ্ধ কুয়াকাটা থেকে গভীর সমূদ্রে জেগে ওঠা নতুন চর বিজয়ে। কুয়াকাটা থেকে ট্রলারে চেপে আড়াই ঘণ্টার সমূদ্র পাড়িহলে দেখা মিলবে মাঝ সমূদ্রে জেগে ওঠা ‘চর বিজয়’। চরটিতে নামলেই শীত মৌসুমে দেখা মিলবে দুইপাশে পাখির ঝাঁক। কখনো চরে, কখনো সমুদ্রের পানিতে অবস্থান তাদের। পানির ডেউয়ের সাথে তাল মিলাচ্ছে আবার আসা পর্যটকদের মাথার ওপর দিয়ে ঝাঁক বেঁধে উড়ে যাচ্ছে চরের অন্য প্রান্তে। সময় টিভি

ক্লান্তিতে নিশ্চুপ হয়ে যখন দাঁড়িয়ে পড়বেন বেলাভূমিতে গর্ত থেকে বেরিয়ে আসতে থাকবে অসংখ্য লাল কাঁকড়া। আপনার গতিবিধি লক্ষ্য করে আট পায়ে ভর করে কাঁকড়াগুলো চলতে শুরু করবে বালুর বুকে। কয়েক মিনিটের মধ্যেই বালু চরটি লাল কাঁকড়ায় ভরে যাবে। আর এমন দৃশ্য দেখে যে কেউই ছুটতে থাকে কাঁকড়া ধরতে।

পর্যটকরা জানান, পাখির কাছে গিয়ে ভাল লাগলো, কারণ পাখি যখন মাথার উপর দিয়ে উড়ে যায়। তখন অনেক বেশি ভালো লাগে। লাল কাকড়া গুলো অনেক ভালোলাগে। তবে সার্বক্ষণিক না থাকলেও এখানে আসা পর্যটকরা সমস্যায় পড়লে স্পিডবোট বা ওয়াটার বাইক নিয়ে সহযোগিতায় এগিয়ে আসবে ট্যুরিস্ট পুলিশ। ট্যুরিস্ট পুলিশ অফিসার ইনচার্জ মো.মনিরুজ্জামান বলেন, আমরা সার্বক্ষণিক পর্যটকদের নিরাপত্তা কাজে নিয়োজিত। যদি তাদের কোনো সমস্যা হয় তাহলে আমাদের টিম এগিয়ে যাবে।

গত বছর বিজয়ের মাসে পর্যটকদের জন্য ‘চর বজয়’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। একটু কষ্ট করে আসলেও পর্যটকরা মুগ্ধ হয়েই ফিরছেন চর থেকে। আর ট্যুরিস্ট পুলিশের নজরদারি থাকায় নিরাপদেই চরটি উপভোগ করছেন পর্যটকরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত