প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাহুবলীর এলাকায় বাংলাদেশের মেঘলা

আমি ভীষণ রোমাঞ্চিত। অনুভূতি প্রকাশের কোনো ভাষা আমার জানা নেই।’ ভারতের হায়দরাবাদ থেকে এভাবেই প্রথম আলোকে বললেন বাংলাদেশের মেয়ে মেঘলা মুক্তা। আগামীকাল শুক্রবার ভারতীয় ছবির নায়িকা হিসেবে অভিষেক হচ্ছে তাঁর। ছবির নাম ‘সাকালাকালা ভাল্লাভুডু’। মুক্তির আগে ছবির প্রচারের জন্য তেলেঙ্গনার রাজধানীতেই আছেন তিনি। ঢাকায় ফিরবেন মুক্তির সপ্তাহ দুয়েক পর।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে ট্রেলার প্রকাশ হয় মেঘলা অভিনীত তেলেগু সিনেমার। তখন জানা গিয়েছিল, পরের মাসেই ছবিটি মুক্তি পাবে। অনিবার্য কারণে সে সময় ছবিটি মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি। অবশেষে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। ভীষণ উচ্ছ্বসিত মেঘলা। বললেন, ‘অভিনয়শিল্পী হিসেবে ছবি মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি অনেক আনন্দের, আর দেশের বাইরে হলে তো কথাই নেই। ২৬ জানুয়ারি এখানে এসেছি। ছবি মুক্তির আগে সংবাদ সম্মেলনে ছিলাম। এখানকার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছি। উপস্থিত সাংবাদিক ও অতিথিদের কাছ থেকে ট্রেলার ও আইটেম গানে অভিনয়ের প্রশংসা পেয়েছি। এর বাইরেও টেলিভিশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি। সবাইকে বলছি ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে এসে দেখতে।’

ভারতের অন্যতম ব্যয়বহুল ও আয়ের রেকর্ড গড়া ছবি ‘বাহুবলী’ তেলেগু ভাষার। এই ছবিটি হিন্দিতে মুক্তি পায়। প্রভাস, আনুশকা, তামান্না ভাটিয়া, রানা দাগ্গুবতী অভিনীত ‘বাহুবলী’র দুটি পর্বই ভারতে সুপার ডুপার হিট ছবি।

বাংলাদেশের কয়েকটি ছবিতে ছোট কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেঘলা মুক্তা। অনেকের মতে, সবদিক থেকে যোগ্য হওয়ার পরও দেশের চলচ্চিত্রে উঠতি এই নায়িকার মূল্যায়ন সেভাবে হয়নি। ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’, ‘পাষাণ’ ও ‘নবাব’ ছবিগুলোতে ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এবার এই নায়িকা তেলেগু ছবির প্রধান নায়িকা হিসেবে আসছেন। শুরুর দিকে র‍্যাম্পে কাজ করেছেন মেঘলা। মডেল হিসেবে কাজ করেছেন বিলবোর্ড আর গানের ভিডিওতে। বড় পর্দায় অভিনয়ের স্বপ্ন থেকে নাম লেখান সিনেমায়। সেই স্বপ্ন এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়েছে, মেঘলা অভিনীত ছবি দেশের বাইরেও মুক্তি পাচ্ছে।

‘সাকালাকালা ভাল্লাভুডু’ ছবির পরিচালক শিবা গণেশ। ছবিতে অভিনয়ের জন্য ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে হায়দরাবাদে অডিশন দেন মেঘলা। শতাধিক প্রতিযোগীকে টপকে ভারতের দক্ষিণের ছবিতে নায়িকা হওয়ার সুযোগ মেলে। পরের বছরের শুরুতে ছবির শুটিং শুরু করেন তিনি। মেঘলা এই ছবির গুরুত্বপূর্ণ নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন। চরিত্রের নাম চৈত্রা। এ ছবিতে তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে আছেন তানিষ্ক রেড্ডি। মেঘলার বাবার চরিত্রে আছেন তামিল ও তেলেগু ছবির জনপ্রিয় অভিনেতা সুমন তালওয়ারকে। যিনি দক্ষিণের অন্যতম শক্তিমান অভিনেতা রজনীকান্তের ‘শিবাজি’ ও বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমারের ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’-এ খলচরিত্রের অভিনেতা ছিলেন।

মেঘলা জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে ভারতীয় এক বন্ধুর মাধ্যমে প্রথম কাজের প্রস্তাব আসে। পরে হায়দরাবাদে গিয়ে অডিশন দেন মেঘলা। এরপর একদিন জানতে পারেন অডিশনে টিকে গেছেন। শুটিংয়ের সময় ভাষা না জানায় একটু সমস্যা হয়েছিল বলে জানান তিনি। বলেন, ‘প্রথমদিকে খুব সমস্যায় পড়ি ভাষা নিয়ে। এরপর হায়দরাবাদে গিয়ে তেলেগু ভাষার ওপর প্রশিক্ষণে অংশ নিই। শুটিংয়ে সব সময় একজন দোভাষীও ছিলেন। তিনি তেলেগু সংলাপগুলো ইংরেজিতে লিখে দিতেন। আর আমি বাংলা করে দৃশ্যটি বুঝে নিয়ে শুটিং করতাম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত