প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম বললেন, একই প্রতীকে নির্বাচন করে সরকারের সমালোচনা করতে পারবে কিন্তু বিরোধী দলীয় ভ‚মিকা পালন করা সম্ভব নয়

আমিরুল ইসলাম : আওয়ামী লীগের সভাপতিমÐলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আনুষ্ঠানিক বিরোধী দল না হলেও সংসদে বিরোধী দলের ভ‚মিকায় থাকবে ১৪ দলের শরিকরা। কিন্তু এ ব্যাপারে শরিকদের অনেকের অনাগ্রহ রয়েছে। এক জোটে এক প্রতীকে নির্বাচন করে শরিকদের বিরোধী দলের ভ‚মিকা পালন করা প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম বলেছেন, সরকারের সমালোচনা করা আর বিরোধী দলীয় ভ‚মিকা পালন করা আলাদা বিষয়। এই পরিস্থিতিতে যারা নৌকার প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করে সংসদে এসেছেন তাদের পক্ষে বিরোধী দলের ভ‚মিকা পালন করা সম্ভব নয়।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, সরকারের কোনো কাজের সমালোচনা যে কেউ করতে পারে। সরকার দলীয় কোনো ব্যক্তিও সরকারের সমালোচনা করতে পারবে। সরকার থেকে যদি এমন কোনো কাজ করা হয় যেটা জনস্বার্থবিরোধী এ ব্যাপারে যে কেউ কথা বলতে পারে। এখানে প্রশ্নটা যেটা আসে সেটা হচ্ছে, ভোটিংয়ের সময় কেউ নিজ দলের বিরুদ্ধে ভোট দিলে তার প্রার্থিতা বাতিল হয়ে যাবে। সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদে সংসদ সদস্য পদ বাতিল হওয়ার দুইটা বিষয় উল্লেখ আছে। একটা হচ্ছে, কোনো সংসদ সদস্য যদি তার দল থেকে রিজাইন করে। আরেকটা হচ্ছে, সংসদে নিজ দলের বিরুদ্ধে যদি ভোট দেন। এখন কোনো ব্যক্তি যে দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে এমপি হয়েছেন সে দলের প্রার্থী হিসেবে তিনি এ দু’টি কাজ করতে পারবেন না। বাকি সব কাজই করতে পারবেন। যারা নৌকার প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য হয়েছেন তারা সরকারের সমালোচনা করতে পারবেন, এ দু’টি কাজ না করলেই হলো। একই প্রতীকে নির্বাচন করে বিরোধী দলের ভ‚মিকা পালন করার ব্যাপারে সংবিধানে কোনো কিছু উল্লেখ নেই। তারা বিরোধী দলের ভ‚মিকা পালন করতে পারবেন না, এটাও বলা নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিরোধী দলের কোনো সংজ্ঞা সংবিধানের কোথাও দেয়া নেই। বিরোধী দলীয় নেতার একটা সংজ্ঞা সংসদীয় কার্যপ্রণালী বিধিতে আছে। সেটা অনুযায়ী সরকারের বিরোধিতা করে এ রকম যেসব সংসদ সদস্য তাদের থেকে সমষ্টিগতভাবে যে বেশি ভোট পাবেন তাকে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে বিবেচনা করা হবে। এই পরিস্থিতিতে যারা নৌকার প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করে সংসদে এসেছে তাদের পক্ষে বিরোধী দল হওয়া সম্ভব নয়। তারা সরকারের সমালোচনা করতে পারবে কিন্তু বিরোধী দলের ভ‚মিকা পালন করার কোনো সুযোগ তাদের নেই। সংসদের প্রত্যেকটা ব্যক্তি স্বাধীন, তার বিবেকের কাছে সে চাইলেই সরকারের সমালোচনা করতে পারবে। সংখ্যাগরিষ্ঠ দল আর সরকার এক নয়। সমালোচনা এক জিনিস আর বিরোধী দলীয় ভ‚মিকা পালন করা আরেক জিনিস। বিরোধী দলীয় ভ‚মিকা পালন করা মানে হচ্ছে যখন সংসদে কোনো বিষয়ে ভোটাভুটির প্রশ্ন আসে তখন সরকারের বিপক্ষে ভোট দেয়া। এটাই হচ্ছে বিরোধী দলীয় কাজ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত