প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সমর্থন আদায়ে সেনাবাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন ভেনিজুয়েলার স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট

সান্দ্রা নন্দিনী : ভেনিজুয়েলার বড় বড় শহরে বুধবার স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুয়াইদোর সমর্থনে হাজার হাজার সমর্থক মিছিল-সমাবেশ করেছে। সেসময় তারা হাতে ব্যানার ও পতাকা নিয়ে মাদুরোবিরোধী স্লোগান দিতে থাকেন। দেশটির রাজধানী কারাকাস থেকে কয়েকজনকে আটকও করে পুলিশ। আল জাজিরাকে একজন আন্দোলনকারী জানান, ‘আমরা দারিদ্র্যের সঙ্গে যুদ্ধ করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি। আমাদের ওষুধ নেই, খাবার নেই। আমরা অনুরোধ জানাই তারা যেন দেশে মানবিক সহায়তা আসতে দেয়। আর এখন আমাদের প্রধান দাবি হলো মাদুরোর পদত্যাগ।’

নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, হুয়ান গুয়াইদো ভেনেজুয়েলার সেনাবাহিনীর সমর্থন আদায়ের জন্য বাহিনীটির সদস্যদের সঙ্গে গোপনে বৈঠক করেছেন। নিউইয়র্ক টাইমস প্রকাশিত প্রবন্ধে স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট গুয়াইদো লিখেছেন, সশস্ত্র বাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে আমাদের কয়েকটি গোপন বৈঠক হয়েছে।’ প্রবন্ধে তিনি বলেন, ‘মাদুরোর ওপর থেকে সেনাবাহিনীর সমর্থন প্রত্যাহার সরকার পরিবর্তনে অনেকবড় ভূমিকা রাখতে সক্ষম এবং তাদের বেশিরভাই মনে করেন দেশের বর্তমান সঙ্কট কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বুধবার এক টুইট-বার্তায় জানিয়েছেন, তিনি গুয়াইদোর সঙ্গে কথা বলেছেন এবং তার ‘প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঐতিহাসিক দায়িত্ব গ্রহণ’কে সমর্থন জানিয়েছেন। ট্রাম্প বলেন, ‘স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ শুরু হয়েছে!’

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ ভুক্ত দেশগুলোর কাছে মাদুরো সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহবান জানিয়েছেন। বুধবার তিনিও গুয়াইদোর সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে বিরোধীদল-নিয়ন্ত্রণাধীন ন্যাশনাল অ্যাসেমব্লি মাদুরোর দ্বিতীয় মেয়াদকে ‘অবৈধ’ ঘোষণা করার পরপরই নিজেকে ভেনিজুয়েলার অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা দেন গুয়াইদো। পরবর্তীতে, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও ল্যাটিন আমেরিকার অন্যান্য দেশসহ কয়েকটি মিত্রদেশ তাকে সমর্থন দেয়। অন্যদিকে, রাশিয়া, চীন, তুরস্ক মাদুরোর প্রতি সমর্থন জানিয়ে ভেনিজুয়েলার স্বঘোষিত প্রেসিডেন্টের প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমর্থনের তীব্র নিন্দা করেছেন।

বুধবার চার মিনিটের একটি ভিডিও-বার্তায় মাদুরো বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র একটি মহান দেশ এবং এই দেশটি ডোনাল্ড ট্রাম্পের তুলনায় অনেক বিশাল। আমি কেবল ভেনিজুয়েলার প্রতি সম্মান দেখানোর আহবান জানাই। এই মুহূর্তে আমার সমর্থন প্রয়োজন যেন ভিয়েতনামযুদ্ধের মত আরেকটি যুদ্ধ হওয়া ঠেকাতে পারি।’ তিনি বলেন, ‘বিরোধীদল সামরিক অভ্যুত্থান ঘটানোর চেষ্টায় আছে। তবে, ল্যাটিন আমেরিকায় আমরা আরেকটি ভিয়েতনামযুদ্ধ হতে দেবো না। যুক্তরাষ্ট্র যদি হামলার পরিকল্পনা করেও থাকে, তারা আরেকটি ভিয়েতনামের চেয়েও বড় শিক্ষা পাবে যা তারা কোনদিন কল্পনাও করেনি।’

মার্কিন নাগরিকদের প্রতি তার প্রথম সরাসরি বার্তায় মাদুরো বলেন, ‘মার্কিন গণমাধ্যমগুলো “মিথ্যা খবরের বর্বর প্রচারণা” চালাচ্ছে। যারমাধ্যমে ট্রাম্প প্রশাসনকে ভেনিজুয়েলায় হস্তক্ষেপে উস্কানি দেওয়া হচ্ছে।’ মার্কিন জনগণের উদ্দেশ্যে মাদুরো বলেন, ‘ভেনিজুয়েলা প্রাকৃতিক ও জ¦ালানি সম্পদের একটি বিশাল দেশ। সবচেয়ে বড় সত্য হলো এটিই ভেনিজুয়েলার ওপর হামলাচেষ্টার মূল রহস্য। আর তাই আমি আপনাদের বিবেক ও সংহতির জন্য আবেদন জানাই।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত