প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১৪ বিদ্যালয়ের ছয় প্রধান শিক্ষকই অনুপস্থিত

অনলাইন ডেস্ক: বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার মান ফিরিয়ে আনতে দেশব্যাপী অভিযান পরিচালনা করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন- ১০৬) দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সম্প্রতি অভিযোগ আসে যে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকরা যথাসময়ে উপস্থিত হন না এবং বিভিন্ন খাত দেখিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে বেআইনিভাবে অর্থ আদায় করছেন। ফলে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে এবং শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তথ্য- জাগো নিউজ

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দেশের চার জেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনার নির্দেশ দেন দুদক মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী। বুধবার একযোগে রাঙামাটি, দিনাজপুর, ফরিদপুর ও রাজধানী ঢাকায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানকালে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে কাঞ্চনডোব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রঘুনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গরীবপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রহিমাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বিন্নাগাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং নবাবগঞ্জ মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করে মোট ছয় প্রধান শিক্ষককে অনুপস্থিত পাওয়া যায়।

অপরদিকে, ফরিদপুর সদরের চারটি বিদ্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করেন সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ফরিদপুর-এর একটি দল। দলটি টেপাখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষককে স্কুলে অনুপস্থিত পান। তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়।

এদিকে, ফরিদপুরের বিষ্ণুপুর উচ্চ বিদ্যালয় এবং হালিমা গার্লস স্কুল ও কলেজে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রমাণ পাওয়া গেলে তা অভিভাবকদের নিকট ফেরত প্রদানের ব্যবস্থা নেয়া হয়। দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়, রাঙামাটির রাণীদয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার ফর্ম পূরণের সময় বাধ্যতামূলকভাবে ২০০০ টাকা প্রদান ও কোচিং করতে বাধ্য করার প্রমাণ পায়। দুদক টিম এ অর্থ ফেরত প্রদানের জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করে।

গত ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরিচালিত অভিযানে প্রধান শিক্ষক কর্তৃক গৃহীত অবৈধ অর্থ পুনরুদ্ধারে ওই বিদ্যালয়ে পুনরায় অভিযান পরিচালনা করে দুদক টিম। সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক দুদক টিমকে মুচলেকা প্রদান করেন যে, অবিলম্বে গৃহীত সকল টাকা দুদক টিমের উপস্থিতিতে অভিভাবকদের নিকট ফেরত প্রদান করা হবে।

অভিযান পরিচালনা প্রসঙ্গে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, শিক্ষা ব্যবস্থায় বিরাজমান অবক্ষয় ও বিশৃঙ্খলা দূর করতে দুদকের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রশাসন ও শিক্ষার্থীদের সমান্তরালে জনসাধারণকেও দুর্নীতিবিরোধী অবস্থানে নামতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত