প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কৌশল পাল্টেছে মাদক ব্যবসায়ীরা, তৎপর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

মারুফুল আলম : ইয়াবার বিরুদ্ধে অব্যাহত অভিযানের পর আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে ভাবনায় ফেলে দেয় মাদকের নতুন রুপ সাদা ইয়াবা। এটিও আসছে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত এলাকাসহ বন্দর দিয়ে। সেইসাথে মাদক বহনে চলছে নিত্যনতুন কৌশল। এটিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাদক পাচার বন্ধে অভিযানের পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির বিকল্প নেই। সূত্র: ডিবিসি নিউজ।

অভিযান শুরুর পর মাদক চালানে কৌশল পাল্টেছে মাদক ব্যবসায়ীরা। আগে চট্টগ্রাম ও টেকনাফ দিয়ে মাদক আসলেও এখন দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে ইয়াবা। এমনকি রং পাল্টে নতুন মাদক নিয়ে আসছে ব্যবসায়ীরা। এরই মধ্যে মাদক পাচারের রুটও পরিবর্তন করেছে ব্যবসায়ীরা। আগে যেখানে চট্টগ্রাম ও টেকনাফ হয়ে সমুদ্র পথে ইয়াবা আসতো, সেখানে বর্তমানে দেশের অন্তত ২০টি সীমান্ত পথে আসছে এই মাদক।

র‌্যাব এর পরিচালক (লিগ্যাল এ্যান্ড মিডিয়া উইং) মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘নতুন করে কিছু হলে কাজ করা একটু কঠিন। তবে সব তথ্য আমাদের কাছে আছে। ফিসিং ট্রলার যেগুলো আছে, এগুলো অনেক, প্রতিটি ধরা সম্ভব না হলেও ধরা তো পড়ছে।’
তবে, মাদক পাচার কমাতে সীমান্ত এলাকায় বিজিবি ও কোস্টগার্ডের নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি ঐসব এলাকার মানুষের মাঝে মাদকের ভয়াবহতা তুলে ধরার কথা বলছেন বিষেজ্ঞরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মাহফুজুল হক মারজান বলেন, ‘জেল জরিমানা কাজে আসবে না, যদি না সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা যায়। মাদক নির্মূলে একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করা দরকার। যার কাজ হবে সব প্রতিষ্ঠানকে একত্রিত করে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানে নামা।’ এদিকে, মাদকাসক্ত ব্যক্তিদের পূর্নবাসন ও সরকারি চাকরিতেও ডোপ টেস্ট করার প্রস্তুতি চলছে। একইসঙ্গে ভাসমান মাদক সেবিদের নিয়েও ভাবছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর; জানালেন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জামাল উদ্দীন আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘কেউ যখন ডোপ টেস্টে মাদকাসক্ত হিসেবে চিহ্নিত হবে তার সরকারি চাকরি হবে না, বেসরকারি পর্যায়েও তার কোনো গ্রহণযোগ্যতা থাকবে না। ফলে একটি মনোস্তাত্বিক বাধা চলে আসবে।’
ওদিকে নতুন বছরে অভিযান জোরদার করতে আরও দক্ষ জনবল নিয়োগ ও নিজেদের শক্তিমত্তা বৃদ্ধি করা হবে বলেও জানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত