প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে বিরোধীদের মধ্যে ঐক্যজোট হলে তা মোকাবেলা করতে অক্ষম হবে বিজেপি : বদরুদ্দীন উমর

স্মৃতি খানম : জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সভাপতি বদরুদ্দীন উমর বলেছেন, বিজেপির পরই কংগ্রেস এখন একটা সর্বভারতীয় পার্টি। কাজেই কংগ্রেসকে বাইরে রেখে বিজেপির মোকাবেলা করার চিন্তা বিপজ্জনক। মায়াবতী, অখিলেশ যাদব, মমতা ব্যানার্জি প্রমুখ নিজেদের রাজ্যে যতোই শক্তিশালী অবস্থানে থাকুন, সর্বভারতীয় নেতৃত্বের ক্ষেত্রে তাদের সমর্থন খুব সীমিত। সূত্র : যুগান্তর

তিনি আরও বলেন, কলকাতায় কয়েকদিন আগে মমতা ব্যানার্জি যে বিজেপিবিরোধী সমাবেশ করেছেন, তাতে তারা কংগ্রেসকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। রাহুল গান্ধী না গেলেও কংগ্রেসের প্রতিনিধি সেখানে বক্তৃতা করেছিলেন। এ থেকে মনে হয়, মমতা ব্যানার্জি কোনো ভবিষ্যৎ জোটের মধ্যে কংগ্রেসকে রাখার পক্ষে।

একসঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে তার কোনো আপত্তি নেই। দক্ষিণে তামিলনাড়ু, অন্ধ্র প্রদেশ, তেলেঙ্গানা ইত্যাদিতেও কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তেমন কোনো বিরাগ আছে বলে মনে হয় না। কংগ্রেস নিজেও জোট গঠনের চেষ্টা করবে এবং এভাবে যদি উপরোক্ত রাজ্যগুলোতে তারা জোটবদ্ধ হতে সক্ষম হয়, তাহলে শেষ পর্যন্ত এর প্রভাব উত্তর প্রদেশেও পড়তে পারে। সেটা হলে সারা ভারতে বিরোধীদের ঐক্যজোটের মোকাবেলা করতে বিজেপি অক্ষম হবে। কারণ ইতোমধ্যেই বিজেপি জনগণ থেকে অনেকখানি বিচ্ছিন্ন হয়েছে এবং তারা বিজেপির বিরুদ্ধে ভোট দিতে প্রস্তুত। বিশেষত কৃষকদের মধ্যে বিজেপির বিরুদ্ধে সর্বত্র যে ক্ষোভ ও বিক্ষোভ দেখা যাচ্ছে তাতে এ সম্ভাবনার ইঙ্গিত আছে।

ভারতে মাঝে মাঝে একদলীয় শাসন দেখা গেলেও তাদেরও জোট বেঁধেই শীর্ষস্থানে যেতে হয়েছে। বিগত কংগ্রেস সরকার এবং বর্তমান বিজেপি সরকারের ক্ষেত্রে এটা প্রযোজ্য। তবে ভারতে এখন একদলীয় শাসনের অবসান হয়েছে। কংগ্রেস ১৯৪৭ সালের পর থেকে যেভাবে টানা নিজের শাসন বজায় রেখে এসেছিলো, সেরকম পরিস্থিতি ভারতে আর নেই। এর মূল কারণ ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের স্পষ্ট সংঘাত এমন অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছে যে, ভারতের ঐক্য বলতে যা বোঝায় তার অবস্থা আর আগের মতো নেই। বিভিন্ন রাজ্যে আঞ্চলিক দলগুলোর গঠন এবং তাদের দ্বারা ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওয়ার মধ্যেই এর প্রমাণ পাওয়া যায়। কাজেই যে কারণে এভাবে রাজ্য পার্টিগুলো গঠিত ও শক্তিশালী হয়েছে, সেকারণেই ভারতে এখন এক দলের সর্বভারতীয় কোনো পার্টির সরকার প্রায় অসম্ভব। কাজেই আগামী নির্বাচনেও কে বা কোন দল থেকে প্রধানমন্ত্রী হবেন এটা অনিশ্চিত হলেও কোয়ালিশন সরকার ছাড়া অন্য পথ নেই। ভারত এখন কোয়ালিশন সরকারের যুগে প্রবেশ করেছে।

 

সর্বাধিক পঠিত