প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জমজমাট বাণিজ্যমেলা
প্রাণের প্যাভিলিয়নে মিলছে একটির সঙ্গে আরেকটি ফ্রি এর অফার

স্বপ্না চক্রবর্তী : দিনকে দিন জমেই উঠছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। ক্রেতা-দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে মেলা প্রাঙ্গন। সুযোগে বিক্রেতারা যেমন মুনাফা লাভ করছেন পছন্দমতো পণ্য সহজলভ্যে কিনতে পেরে খুশি হচ্ছেন ক্রেতারা। ক্রেতাদের কাছে নিজেদের চাহিদা বাড়াতে ফ্রি আর ছাড় দিচ্ছে বিভিন্ন দেশীয় কোম্পানী। এর মধ্যে প্রাণ আরএফএল এর ছাড়ে আকৃষ্ট হয়ে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে বিক্রয় কর্মীরা।

মঙ্গলবার ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ৩নম্বর জেনারেল প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নে গিয়ে দেখা যায় প্রাণের একটি স্যুপ কিনলে ক্রেতারা পাচ্ছেন আরেকটি স্যুপ। এখানে একটি ইনস্ট্যান্ট টম ইয়াম স্যুপের দাম মাত্র ১৫টাকা। এ দাম দিয়ে একটি কিনলে পাওয়া যাচ্ছে আরও একটি ফ্রি। শুধু তাই এখানে বিকাশে বিল পরিশোধ করলে মিলছে ১৫শতাংশ ক্যাশব্যাক। প্যাভিলিয়নের ইনচার্জ মো. আফজাল হোসেন জানান, আমাদের প্যাভিলিয়ন থেকে যেকোনো পণ্য কিনে বিকাশে পেমেন্ট করলে ১৫ শতাংশ ক্যাশব্যাক পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়াও নগদ ছাড়সহ দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন অফার। তিনি জানান, প্যাভিলিয়নটি থেকে কেউ ১২ টাকা দিয়ে দুটি আইস বার মেগা কিনলে সঙ্গে পাবেন একটি ফ্রি। ১২ টাকা দিয়ে দুটি রোবোকপ ড্রিংকস কিনলেও মিলছে একটি ফ্রি। আর ১০ টাকা দিয়ে দুটি আইস ললি কিনলে পাওয়া যাচ্ছে একটি ফ্রি। ২০ টাকা দিয়ে দুটি গ্লাস কাপ ড্রিংকস কিনলে একটি পাওয়া যাচ্ছে একটি ফ্রি।

তবে ব্যাংকার ইশরাত জাহান নাজনীন খুশি প্রাণের তেতুলের চাটনি কিনে। তিনি বলেন, ১৫টাকা দিয়ে তিনটি তেতুল চাটনি কিনেই ফ্রি পেলাম একটি। শুধু তাই নয় ১৫টাকা দিয়ে ৩টি জেমন কিনে ফ্রিতে পেলাম আরও একটি। বাচ্চার জন্য ৪৫টাকা দিয়ে তিনটি ব্যাং ব্যাং চিপস কিনে ফ্রি পাইলাম একটা। ৩০টাকার তিনটি পটেটো ক্র্যাকার্স কিনেও ফ্রি পেয়েছি একটা। এরকম ফ্রি এর মজা শুধু বাণিজ্যমেলাতেই পাওয়া সম্ভব। তাই প্রতিবছরই মেলার সময় প্রায় প্রতি সপ্তাহেই আসি পরিবারকে নিয়ে।

এদিকে প্রাণ কর্তৃপক্ষ জানান, এসব ফ্রি অফারের পাশাপাশি প্যাভিলিয়নটি থেকে পাওয়া যাচ্ছে আরও ১৭টি প্যাকেজ। যে প্যাকেজগুলোর প্রত্যেকটিতে থাকছে নগদ ছাড়। এর মধ্যে ৩৪০ গ্রাম চিলি সস একটি, প্রাণ চিলি সস ৩৪০ গ্রাম একটি, প্রাণ তেঁতুলের সস ৩৪০ গ্রাম একটি এবং প্রাণ টমেটো সস প্লাস্টিকের জার ৭৫০ গ্রামের একটি নিয়ে তৈরি প্যাকেজ পাওয়া যাবে ৩৩০ টাকায়। যার প্রকৃত মূল্য ৪১০ টাকা। অর্থাৎ এ প্যাকেজটি কিনলে ক্রেতাদের সাশ্রয় হবে ৭০ টাকা।

মেলা শেষ হতে বাকি মাত্র আর হাতে গোণে ১০দিন। ফলে রাজধানী তো আছেই দেশের অন্যান্য জেলা থেকেও মেলায় ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। কুমিল্লা থেকে বাবা-মায়ের সাথে মেলায় আসা উর্মি জানান, ছোট বেলা থেকেই ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার কথা শুনি। খুব দেখার আগ্রহ। তাই এইবার বাবা-মা রাজি করিয়ে গতকালকে চলে এসেছি। দেশি-বিদেশি এত রকমের পণ্যের সমাহার আমি আর আগে দেখিনি।

মেলার আয়োজক রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরো সূত্রে জানা যায়, ৯ জানুয়ারি শুরু হওয়া মেলার পর্দা নামবে ৮ ফেব্রুয়ারি। প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হয়ে মেলা চলছে রাত ১০টা পর্যন্ত। প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য মেলার টিকেটের মূল্য ৩০ টাকা ও অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ২০টাকা। প্রথমবারের মতো এবার মেলার টিকিট এবার অনলাইনেও পাওয়া যাচ্ছে। মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাসহ মোট স্টলের মোট সংখ্যা রয়েছে ৬০৫টি। এর মধ্যে রয়েছে প্যাভিলিয়ন ১১০টি, মিনি-প্যাভিলিয়ন ৮৩টি ও রেস্তোরাঁসহ অন্যান্য স্টল ৪১২টি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত