প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নিষিদ্ধ সত্ত্বেও বহু বিবাহের দাবি তুলছেন তিউনিসিয়ার নারীরা

রাশিদ রিয়াজ : একাধিক বিয়ে নিষিদ্ধ থাকায় তিউনিসিয়ার অনেক নারী বিয়ের সুযোগ না পেয়ে আইবুড়ো হয়ে যাচ্ছেন। রাজধানী তিউনিসে একদল নারী দেশটির সংসদের সামনে নারী দিবসে একাধিক বিয়ের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন। তিউনিশিয়ার ‘পারসোনাল স্ট্যাটাস কোড’এ একাধিক বিয়ে করা শুধু নিষিদ্ধ নয় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এর বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কয়েকজন নারী বিক্ষোভের আহবান জানালে তারা ফোরাম অব ফ্রিডম এন্ড সিসিজেনশিপের ব্যানারে এ বিক্ষোভের আয়োজন করেন। মিডিল ইস্ট মনিটর

ফোরামের প্রেসিডেন্ট ফাতিহ আল-জাঘাল জানান, বিয়ের সুযোগ না পাওয়ায় তিউনিসিয়ায় অনেক মেয়ে আইবুড়ো হয়ে পড়ছে। দ্বিতীয় বিয়ের সুযোগ থাকলে এ পরিস্থিতির পরিবর্তন সম্ভব। এ সংকট নিরসনে একাধিক বিয়ের ব্যাপারে যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে তা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। এছাড়া তিনি নারীর অধিকার নিশ্চিত সহ তালাক ও দত্তক প্রথার ব্যাপারে যে আইন আছে তা সংশোধনের আহবান জানিয়ে বলেন এসব আইন ইসলামের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কোনো রাজনৈতিক কারণ নয়, তিউনিসিয়ার নারীদের বিয়ের সংকট কাটাতেই এধরনের দাবি তারা করছেন বলে জানান। তবে অধিকাংশ তিউনিসিয়ার নাগরিক বহুবিবাহের বিপক্ষে। তিউনিসিয়ার বিশিষ্ট আলেম ও গবেষক সামি ব্রাহাম বলেন, যে সব নারী বিয়ের সুযোগ পাচ্ছেন না এবং তরুণীদের প্রতি অধিক ঝোঁক থাকায় একাধিক বিয়ে সিদ্ধ করে দিলে অনেক বয়স্ক নারীরা সংসার শুরু করতে পারবেন। মহানুভবতার বিষয়টি মাথায় রেখে তাদের বিয়ের সুযোগদানে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

তিউনিসিয়ায় অবিবাহিত নারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে কুড়ি লাখেরও বেশি। দেশটিতে নারীর সংখ্যা রয়েছে প্রায় ৫০ লাখ। আর আইবুড়ো মেয়েদের বয়স হচ্ছে ২৫ থেকে ৩৪ বছরের মধ্যে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত