প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লক্ষ্মীপুরে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক মাদ্রাসার জমি দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চর শামছুদ্দীন জাহেরিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার ৩একর জমি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী মিয়া ভাইয়ের নেতৃত্বে জবর দখল করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ।

সোমবার দুপুরে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা।

মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সদস্য হাজী জয়নাল আবেদীন, জব্বার মিয়া, আবদুর রব মাঝী, মনির আহমেদ, সিরাজ মিয়া, অভিভাবক ফয়েজ আহম্মদ, আবদুস সহিদ, আবদুল কাদের, আবুল কাশেম দুলাল প্রমূখ।

মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সদস্য হাজী জয়নাল আবেদীন জানান, জেলার কমলনগর উপজেলার চর শামছুদ্দীন জাহেরিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা কমপ্লেক্সটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৫ সালে। উক্ত মসজিদ-মাদ্রাসায় মরহুম ছায়েদুল হক ও কালামিয়া গংরা ২.১৬ একর জমি দান করে।

এ ছাড়া মাদ্রাসার পক্ষ থেকে ৩একর জমি খরিদ করা হয়। গত ২৭জানুয়ারী চর মার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী মিয়া ভাইয়ের নেতৃত্বে সোলায়মান সিরাজ, আবছার আহম্মেদ হিমেল, শরিফ উদ্দিন প্রিন্স, আল আমিন ও জাহাঙ্গীর আলম মসজিদ-মাদ্রাসা কমপ্লেক্সের ৩একর জমিতে পাওয়ার টিলার দিয়ে চাষ করে সয়াবিন ফেলে দখল করে নেয়। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসী ফুসে উঠে এবং ক্ষোভে ফেটে পড়ে। জবর দখলের প্রতিবাদে এলাকাবাসী শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ হিসেবে মাদ্রাসা কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করে।

উক্ত মাদ্রাসায় ২৫ জন শিক্ষক ও ১৫‘শ ছাত্র-ছাত্রী লেখাপড়া করছেন। এই মাদ্রাসায় এবতেদায়ী ১ম শ্রেণী থেকে দাখিল পর্যন্ত পড়ালেখা হয়। ১৯৮৫ সালে মাদ্রাসাটি এমপিও ভূক্ত হয়। গত বছর এই মাদ্রাসা থেকে ৪২ জন ছাত্র-ছাত্রী দাখিল পরীক্ষা দিয়ে শতভাগ পাশ করে। ইতোমধ্যে উক্ত মাদ্রাসা উপজেলার শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট ওসমান গণি বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী (মিয়া ভাই) মাদ্রাসার জমি দখল করার পাঁয়তারা করে আসছিল। গতকাল রোববার তার লোকজনকে দিয়ে মাদ্রাসার ৩ একর জমিতে পাওয়ার টিলার দিয়ে চাষ করে সয়াবিন ফেলে জবর দখল করে। এ বিষয়ে আমরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

চর মার্টিন ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আনিসুর রহমান বলেন, আমিও অত্র মাদ্রাসার ছাত্র ছিলাম। একটি দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করার জন্য উক্ত কুচক্রি মহল মাদ্রাসার জমি দখল করে। দখলের প্রতিবাদ না করার জন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমরা এলাকাবাসী এহেন হীন কাজের জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সুপার মাওলনা আবু ছালেহ মোহাম্মদ নুর বলেন, চর শামছুদ্দীন জাহেরিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা কমপ্লেক্সটিতে মসজিদ, নুরানী দ্বীনিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা রয়েছে। এ দ্বীনি প্রতিষ্ঠান থেকে গত ৪৩ বছরে বহু ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষা গ্রহণ করে দেশ সেবার কাজে নিয়োজিত রয়েছে। মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই উক্ত কুচক্রি মহল বিভিন্ন ভাবে মাদ্রাসার পাঠদানে বেঘাত সৃষ্টি করে আসছে। শেষ গত রবিবার মাদ্রাসার ৩একর জমি তারা দখল করেছে। তার প্রতিবাদে এলাকাবাসী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। উক্ত দ্বীনি প্রতিষ্ঠান রক্ষায় ও প্রতিষ্ঠানের জমি উদ্ধারে আমরা জেলা প্রশাসকসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত