প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কওমী মাদরাসা নিয়ে ভালোবাসার বাংলাদেশ’র নাটক ‘আব্দুল্লাহ’ (ভিডিও)

আক্তারুজ্জামান : এ বছরের ১৬ ডিসেম্বর স্বাধীনতার ৪৭ বছর পার করেছে বাংলাদেশ। এই ৪৭ বছরের বাংলাদেশকে আপনি কিভাবে দেখতে চাইবেন, সেটার এক মিনিটের ভিডিও তৈরি করে পাঠিয়ে দিন এবং জিতে নিন ১০ লক্ষ টাকা। এমন একটি ক্যাম্পেইনে শুরু হয়েছিল ‘ভালোবাসার বাংলাদেশ’ নামক প্রতিযোগীতা। সেখানে বিভিন্ন প্রতিযোগী বাংলাদেশকে বিভিন্নভাবে উপস্থাপন করেছেন। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠান শেষে পুরস্কারও বিতরণ শেষ। কিন্তু আকর্ষণ তখনও বাকি রেখেছিল আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

অংশগ্রহণকারীদের পাঠানো ভিডিও থেকে আইডিয়া বাছাই করে তিনটি নাটক নির্মাণ করতে চেয়েছিলেন। সেটা নির্মাণ হয়েছে। আর সেখানেই দেখা গেছে কওমী মাদরাসাকে নিয়ে নির্মিত একটি নাটক। মোট ভিডিও জমা পড়েছিল ৯৪৬৭টি। এর মধ্যে থেকে ‘সেরা ১০০’তে স্থান করে নেয় নিয়াজ রাজিবের তৈরিকৃত কওমী মাদরাসার ভিডিওটা। আর সেই ভিডিও থেকেই আইডিয়া নিয়ে তৈরিকৃত নাটকটি গত ১৬ ডিসেম্বর প্রচারিত হয়েছে। যার নাম ‘আব্দুল্লাহ’। ফিনিক্স, চাকা ও আব্দুল্লাহ নামের তিনটি নাটক তৈরি করেছে ভালোবাসার বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের মূলধারার গণমাধ্যম কওমী বিমুখ। শুধু তাই নয়, পেশাগত জীবনে এই মাদরাসার ছাত্রদের তেমন মূল্যায়ন করা হয় না। সেটার প্রেক্ষাপটেই নির্মিত হয়েছে নাটকটি। গোলাম কিবরিয়া ফারুকীর চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় আধাঘণ্টার নাটকটি নির্মিত হয়েছে। যার মূল চরিত্রে ছিলেন সোলাইমান খোকা, মুনিরা মিঠু, শাহবাজ সানি ও অদ্রিকা প্রসূন।

একই পরিবারের দুই ভাই। বাংলা মাধ্যমে লেখাপড়া শেষ করা বড় ভাই ভালো চাকরী পেলেও মাদরাসা লাইনের লেখাপড়া শেষ করলেও চাকরীর বাজারে নিজের কোনো স্থান পান না। সেখান থেকেই সঙ্কট তৈরি এবং এক পর্যায়ে অন্যরকম হয়ে ওঠেন। বাংলাদেশ সরকারের কাছে কওমী মাদরাসার স্বীকৃতির দাবীতে আন্দোলন করেন। এক পর্যায়ে সফল হন। ব্যক্তিগত সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে নাটকটি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছেন পরিচালক গোলাম কিবরিয়া ফারুকী।

যদিও নাটকটি দেখে আলোচনা-সমালোচনা বেশ ভালোই হচ্ছে। কেউ কেউ বলছেন কওমী মাদরাসার মূল দৃশ্যপট দেখানো হয়নি। কেউ বা আবার কওমী মাদরাসাকে গণমাধ্যমে নিয়ে আসায় বেশ উৎফুল্ল। তাদের ধারণা আগামীতে গণমাধ্যম আরও ভালো কিছু নির্মাণ করবে কওমী মাদরাসা নিয়ে।

স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের সৌজন্যে সম্পূর্ণ প্রতিযোগীতা শেষ হয়। ভালোবাসার বাংলাদেশ প্রতিযোগীতায় বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন মোস্তফা সারোয়ার ফারুকী, অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত