প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্বর্ণের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

আবু বকর : বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) স্বর্ণের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা দিয়ে ছয় ঘণ্টা পরই তা পরিবর্তন করেছে । ফলে আপাতত বাড়েনি স্বর্ণের দাম। দেশের বাজারে রোববার থেকে স্বর্ণের দাম বাড়ার কথা ছিলো।

গত ২২ ডিসেম্বর শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় এক বিজ্ঞপ্তিতে স্বর্ণের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয় বাজুস। যা আজ রোববার থেকে কার্যকর করার কথা ছিল। কিন্তু দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়ার ৬ ঘণ্টা পর রাত সোয়া ১২টার দিকে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের এ সংগঠনটি তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে।

বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগারওয়াল বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে দেশের বাজারে স্বর্ণ- রোপার দাম নির্ধারণ করা হয়। এখন আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম বেশি। তাই দেশের বাজারে সমন্বয় করতে দাম বাড়িয়ে নতুন করে স্বর্ণের মূল্য নির্ধারণ করা হয়। যা রোববার থেকে কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দাম বাড়ানোর পরই ক্রেতারা বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া জানান। বড়দিন, ইংরেজি নববর্ষসহ বিভিন্ন বিয়ে ও সামাজিক অনুষ্ঠানের কারণে অনেক অর্ডার রয়েছে। এ সময় ক্রেতারা দাম না বাড়ানোর অনুরোধ করেন। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে চলতি বছরে স্বর্ণের দাম না বাড়ানোর বিষয়ে জরুরি সভায় বসে বাজুস। সভায় পূর্বমূল্য বহাল রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। তাই স্বর্ণের দাম আপাতত বাড়ছে না। অর্থাৎ দেশের বাজারে গত ৬ আগস্ট নির্ধারণ করা দামেই বিক্রি হবে স্বর্ণ ও রোপা।

বাজুস এর ৬ আগস্ট নির্ধারণ করা দাম অনুযায়ী, প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম ৪৭ হাজার ৪৭২ টাকা। এ ছাড়া ২১ ক্যারেট ৪৫ হাজার ১৯৮ টাকা এবং ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের দাম হলো ৪০ হাজার ১২৪ টাকা। আর প্রতি ভরি সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ ২৭ হাজার ৫৮৫ টাকা। প্রতি ভরি ২১ ক্যারেট রুপার (ক্যাডমিয়াম) দাম ১ হাজার ৫০ টাকা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ