প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মহাজোটের আট, ঐক্যফ্রন্টের পাঁচ ভোট ক্যাম্পে হামলা

কালের কন্ঠ  :  নির্বাচনী অফিসে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ অব্যাহত রয়েছে। কক্সবাজারের পেকুয়া, কুমিল্লার দাউদকান্দি, ঝালকাঠির নলছিটি এবং খাগড়াছড়ির পানছড়িতে মহাজোট প্রার্থীর কমপক্ষে আটটি নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা হয়েছে। অন্যদিকে নরসিংদীর শিবপুর, পাবনার চাটমোহর এবং নাটোরের সিংড়ায় হামলা হয়েছে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীর কমপক্ষে পাঁচটি নির্বাচনী ক্যাম্পে। গত শুক্রবার রাত থেকে গতকাল শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এ হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। নোয়াখালীর সুবর্ণচরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। কুমিল্লার তিতাস, বগুড়ার নন্দীগ্রাম ও সিলেটের বিশ্বনাথে মহাজোট প্রার্থীর এবং নেত্রকোনার কমলাকান্দা ও হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীর নির্বাচনী গণসংযোগে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপি-জামায়াতের ১৭১ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কক্সবাজারের পেকুয়ায় গত শুক্রবার রাতে এক রাতেই কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পাঁচটি নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। একই রাতে পেকুয়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেমকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

কুমিল্লা-২ (হোমনা-তিতাস) আসনের প্রার্থী সেলিমা আহমাদ মেরীর গাড়িবহরে ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুমিল্লার তিতাসে গতকাল বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়েছে। এদিকে দাউদকান্দিতে গত শুক্রবার রাতে দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে পুড়ে গেছে মারুকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচারকেন্দ্র।

বগুড়ার নন্দীগ্রামে গত শুক্রবার রাতে নৌকা প্রার্থীর মোটরসাইকেলবহরে হামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় চার নেতাকর্মী আহত হয়েছে। গতকাল এ ঘটনায় বিএনপির ৯৩ নেতাকর্মীকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়েছে।

সিলেটের বিশ্বনাথে মহাজোট প্রার্থী ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী এহিয়ার লাঙল প্রতীকের গণসংযোগে বিএনপির নেতাকর্মীরা হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার খাজাঞ্চি ইউনিয়নের মুফতির বাজারে এ ঘটনা ঘটে। তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বিএনপি নেতারা।

ঝালকাঠির নলছিটির মধ্য গৌরীপাশা এলাকায় গতকাল ভোরে আওয়ামী লীগের একটি নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে

দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের মস্তফাপুর গ্রামে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় নৌকা প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ সময় আওয়ামী লীগের ১০ সমর্থক আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ৪৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করা হয়েছে।

খাগড়াছড়ির পানছড়িতে গত শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় জাতীয় ও দলীয় পতাকায়ও আগুন দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা। আওয়ামী লীগ এ ঘটনার জন্য বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করেছে। এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিএনপি।

নাটোরের সিংড়ার ছাতারদীঘি ইউনিয়নের একডালা বাজারে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বিএনপি প্রার্থী দাউদার মাহমুদের প্রচারণায় আওয়ামী লীগের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় বিএনপি প্রার্থী দাউদার মাহমুদসহ পাঁচ নেতাকর্মী আহত হয়।

নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনে বিএনপির প্রার্থী মনজুর এলাহীর নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল দুপুরে শিবপুর কলেজগেট এলাকায় ধীমান মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সন্ত্রাসীরা একটি জিপসহ ছয়টি গাড়ি ও ১৬টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। এ সময় সন্ত্রাসীদের ছোড়া গুলিতে মাদরাসাছাত্রী মাহদীয়া আক্তার গুলিবিদ্ধসহ পাঁচজন আহত হয়েছে।

পাবনার চাটমোহরে আলাদা তিন স্থানে ধানের শীষের প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর এবং বিএনপির কর্মীদের মারধর করেছে আওয়ামী লীগের সমর্থকরা। গত শুক্রবার রাতে উপজেলা মথুরাপুর বাজার, বাহাদুরপুর ও পৈলানপুর গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এসব হামলায় চার নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

নেত্রকোনা-১ (কলমাকান্দা-দুর্গাপুর) আসনের বিএনপির প্রার্থী ব্যারিস্টার কায়সার কামালের গণসংযোগে ফের হামলা হয়েছে। হামলায় কমপক্ষে ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় দুষ্কৃৃতকারীরা বিএনপির নেতাকর্মীদের ১০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।

হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসনের ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী ও খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আব্দুল কাদের ধানের শীষের নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশা ও মাইক ভাঙচুরের অভিযোগ করেছেন। গতকাল বিকেলে চুনারুঘাট উপজেলার আমুরোড বাজারের পঞ্চমোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

নোয়াখালীর সুবর্ণচরের চর জব্বর ইউনিয়নে গতকাল দুপুরে নির্বাচনী প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়াধাওয়ি ও সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। ভাঙচুর করা হয়েছে কয়েকটি মোটরসাইকেল ও নির্বাচনী অফিস। ঘটনার জন্য এক দল অন্য দলকে দায়ী করেছে। হামলার ঘটনায় সুবর্ণচর উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ বি এম জাকারিয়া ও সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি মাহবুব আলমগীর আলোসহ ১৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

শরীয়তপুরের ডামুড্যার দারুল আমান ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুর রাজ্জাক স্মৃতি সংসদ ক্লাবে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা।

এদিকে গত শুক্রবার রাত থেকে গতকাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াতের ১৭১ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে সাতক্ষীরায় ৭৭ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৯ জন, গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ১০ জন, টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ছয়জন, পটুয়াখালীর দশমিনায় একজন, নেত্রকোনায় তিনজন, চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে তিনজন, বগুড়ার ধুনটে সাতজন, বরগুনার বামনায় তিনজন, চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে আটজন, সীতাকুণ্ডে পাঁচজন ও চন্দনাইশে দুজন, মাগুরার শালিখায় তিনজন, ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় তিনজন, নাটোরের সিংড়ায় একজন, রাজবাড়ীতে একজন, নওগাঁর সাপাহারে একজন এবং শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে দুজন বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে বিভিন্ন অভিযোগে ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় ১৭৬ জন এবং চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ৯০ জন বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীকে আসামি করে আলাদা মামলা করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত