প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২০১৮: নিজেকে হারানোর বৃত্তে মাহি

বিনোদন প্রতিবেদক : বাংলা চলচ্চিত্রে ক্রমেই গুরুত্বপূর্ণ উঠা অভিনেত্রী মাহিয়া মাহির জন্য বছরটা মোটেই ভালো গেল না; তার অর্ধ ডজনের বেশি চলচ্চিত্র মুক্তি পেলেও কোনোটিই ‘উল্লেখযোগ্য’ সাড়া ফেলতে পারেনি।

বছরের শেষভাবে এসে ক্যারিয়ারের হিসাব-নিকাশ কষে গ্লিটজকে নিজের আক্ষেপের কথা জানালেন ‘অগ্নি’ চলচ্চিত্রের এ নায়িকা।

বছরজুড়েই বড়পর্দায় ছিলেন তিনি। মুক্তি পেয়েছে ‘পলকে পলকে তোমাকে চাই’, ‘জান্নাত’, ‘মনে রেখো’, ‘পবিত্র ভালোবাসা’, ‘মনে রেখো’সহ আরও বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্র। কিন্তু কোনোটিই দর্শকরা গ্রহণ করেননি। বরং অনেক চলচ্চিত্রই হল থেকে নেমে গেছে সপ্তাহের মাথায়। অথচ গত বছরের আলোচিত চলচ্চিত্র ‘ঢাকা অ্যাটাক’র অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি; ছিলেন আলোচনার টেবিলেও। আগের বছরগুলোতেও তিনি ছিলেন সপ্রভিত।

সে তুলনায় চলতি বছরকেই তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ব্যর্থতার বছর হিসেবে উল্লেখ করা যেতে পারে। অন্যান্য শিল্পীদের মতো লুকোছাপা না করে অকপটে নিজেও তা স্বীকার করলেন।

“এবছর অনেকগুলো চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে কিন্তু কোনোটিই উল্লেখযোগ্য না। আলাদা করে কোনো ছবির কথা বলব না।”, আত্মসমালোচনা করে বললেন তিনি।

তবে ‘জান্নাত’ চলচ্চিত্রটি নিয়ে আলাদাভাবে প্রত্যাশা ছিল তার; ছিল পছন্দের তালিকায়। কিন্তু সেটিও তার প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি।

তার পরও কেন এই ব্যর্থতা?

যথাযথ প্রচারণার অভাবকে দায়ী করে তিনি বলেন, “প্রচারণা অনেক কম ছিল। ভুল সময়ে রিলিজের জন্য ‘ক্লিক’ করেনি। সবাইকে জানিয়ে ছবিটা রিলিজ দেওয়া হলে দর্শক দেখত।”

ব্যর্থতার বৃত্ত ভেঙে আগামী বছর স্বরূপের ফিরতে চান তিনি। “প্রচুর সিনেমা করব না। কিন্তু এমন একটা সিনেমা করব-যেটি সাধারণ মানুষ পছন্দ করবে।”

সেটিও নিজের ভাগ্যের উপরই ছেড়ে দিলেন এ নায়িকা। তার ধারণা, “যেটা পরিকল্পনা করি সেটা কখনোই পূরণ হয় না। তাই পরিস্থিতির উপর ছেড়ে দিয়েছি।”

জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘ভালোবাসার রঙ’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে বড়পর্দায় অভিষেক হয় রাজশাহীর মেয়ে মাহির। অল্প সময়েই বেশ কয়েকটি দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্রে অভিনয় করে নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করেন।

ছবি: ফেইসবুক থেকে নেওয়া।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত