প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৭২ এর সংবিধান পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি

মো. ইউসুফ আলী বাচ্চু: বর্তমান সংবিধান ৭২ এর সংবিধান নয় এবং এ সংবিধান সকল নাগরিকের সমান মর্যাদা ও অধিকার সুনিশ্চিত করেনি । তাই মৌল আদলে ৭২ এর সংবিধান পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রাণা দাশগুপ্ত।

শুক্রবার ২১ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানা ।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ তার নির্বাচনী ইশতেহারে ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী, ধর্মীয় সংখ্যালঘু ও অনুন্নত সম্প্রদায় সম্বলিত ৩.২৯ অনুচ্ছেদের পঞ্চম সংশোধনীর মধ্য দিয়ে ৭২ এর সংবিধানের চার রাষ্ট্রীয় মূলনীতি পুনঃপ্রতিষ্ঠা কথা উল্লেখ করেছে। একই সাথে বলেছে, স্বাধীন দেশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যে সংবিধান জাতিকে উপহার দিয়েছেন তাতে ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী ও অনুন্নত সম্প্রদায়সহ সকল নাগরিকের সম মর্যাদা ও অধিকার সুনিশ্চিত করেন। আজকের এই সংবাদ সম্মেলন থেকে এর সাথে পূর্ণ সংহতি জ্ঞাপন করে বলতে চাই, বিদ্যমান সংবিধান ৭২-এর সংবিধান নয় এবং এর সংবিধান সকল নাগরিকের সমান মর্যাদা ও অধিকার সুনিশ্চিত করে না। তাই আমরা মৌল আদলে ৭২ এর সংবিধান পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি আবার উত্থাপন করছি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, এদেশের আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি এ তিনটি বৃহৎ রাজনৈতিক দলের ঘোষিত নির্বাচনী ইশতেহার মধ্যে তুলনামূলক বিচারে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহার অধিকতর গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক ও প্রগতিশীল। এ দেশের সকল রাজনৈতিক দল প্রায় অভিন্ন সুরে সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন, সমতল আদিবাসীদের জন্য ভূমি কমিশন গঠন, বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়ন এবং পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন আইনের বাস্তবায়ন সহ পার্বত্য শান্তি চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেছে। এছাড়াও সিপিবিসহ রাজনৈতিক দলসমূহ আরো অনেক ব্যাপারে আমাদের সাত দফা দাবির বেশ কয়েকটি দাবির সাথে ঐক্যমত পোষণ করে অঙ্গীকার করেছে। এই সংবাদ সম্মেলন থেকে এহেন অঙ্গীকার ঘোষণার জন্য সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আমাদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা। আমরা আশা করি এবং নিশ্চিতই বিশ্বাস করতে চাই, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে যারাই সরকার গঠন করুক বা সংসদের বিরোধী দলের অবস্থান নিক তারা তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি যথাযথ বাস্তবায়নের আন্তরিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে জনমনে রাজনীতির প্রতি আস্থা ও শ্রদ্ধা করে তুলবেন।

সংবাদ সম্মেলন তিনি বিভিন্ন দলের নির্বাচনী ইশতেহারে ধর্মীয় সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষায় বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজল দেবনাথ, সাংবাদিক বাসুদেব ধর ও শ্রীমতি মঞ্জুধরসহ প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত