প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমার নেতিবাচক খবর মানুষ খায় ভালো, নেয়ও ভালো : সাকিব

রাকিব উদ্দীন : বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব-আল-হাসানকে ঘিরে বিতর্কের যেন কোন সমাপ্তি নেই। প্রথম টি-টোয়েন্টির শেষে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা নিয়ে প্রশ্নে সাকিবের উত্তরকে নিয়ে বেশ নেগেটিভলি আলোচনা হয়েছে। আর দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে জয়ের পর সেই বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুলেছেন বাংলাদেশ দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।

এর আগে অতীতেও একের পর এক বিতর্কের মধ্যেই ছিলেন বাংলাদেশ দলের বর্তমান টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। অতীত ফেলে এসে বর্তমানেও তাকে ঘিরে বিতর্ক কম নয়। কখনো সেটি নিজের কারণে কিংবা অন্যের মাধ্যমে। ২০১৪ সালেই দর্শক পেটানো সহ আরও একটি কারণে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হয় সাকিবকে।

২০১৭ সালেও টেস্ট থেকে বিশ্রাম চাওয়াতে কম সমালোচনা হয়নি তাকে ঘিরে। এইতো উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা ছিল চোখে পড়ার মতো। ম্যাচ শেষে সেই বিষয়েই প্রশ্ন উঠে আসে। তবে সেটির জবাবে সাকিব জানিয়েছিলেন, ব্যর্থতার কারণ বাকিদের কাছ থেকেই জেনে নিতে। এটিকে বেশ নেগেটিভভাবেই নিয়েছে অনেকেই। সেটি চোখেও পড়েছে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের। এই বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেছেন সাকিব।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ওখানে কিন্তু ব্যাটসম্যানদের দোষ দিয়ে আসিনি। শুধু তাকে (পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের উপস্থাপক) বলেছি, ব্যাটসম্যানদের নেতিবাচক কিছু নয়, মজা করেই বলেছি। পুরো উত্তরটা তো আপনারা লিখবেন না, শুধু ওই নেতিবাচক জিনিসটা লিখবেন। কারণ, আমার নেতিবাচক খবর মানুষ খায় ভালো, নেয়ও ভালো।’

এর পরবর্তীতেও পাল্টা প্রশ্ন আসে সাকিবের কাছে? তবে কি তাকে ঘিরে এমন নেতিবাচক চিন্তা-ভাবনাই কী তার সাফল্যের মূল রহস্য? তবে সাকিব সেটি একবারেই উড়িয়ে দিলেন না। তাকে ঘিরে নেতিবাচক মন্তব্য ভালো খেলতেও সাহায্য করে জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্য, আমিও পছন্দ করি। আমার কাছে মনে হয় এটা ভালো খেলতে একটু হলেও অনুপ্রাণিত করে। আসলে আল্লাহ্র রহমত, এমন পরিস্থিতি যখন আসে, তখন আল্লাহ আমাকে ভালো কিছু দেয়।’

বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে মাঠের বাইরে-ভেতরে যতই বিতর্ক থাকুক না , ২২ গজে যে সাকিবই সেরা সেটা কোনোভাবেই অস্বীকার করা সম্ভব না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত