প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কয়েক জেলায় সংঘাত শতাধিক গ্রেপ্তার

কালের কন্ঠ : একদিকে ভোটের ঢামাডোল, অন্যদিকে চলছে নির্বাচনী সংঘাত। প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হানাহানি আর পাল্টাপাল্টি জ্বালাও-পোড়াও থেমে নেই। গত বুধবার রাত ও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দেশের অনেক স্থানেই হামলা, সংঘর্ষ, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। বগুড়ার সোনাতলা ও চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় ধানের শীষ এবং নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হাঙ্গামা হয়েছে। বরিশালে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জে এম নুরুর রহমানের পা পিটিয়ে ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। কুমিল্লার মেঘনায় ধানের শীষের প্রার্থী ড. খন্দকার মোশাররফের প্রচারে ধাওয়া দেওয়া হয়েছে। চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে নৌকার মিছিলে বোমা হামলা হয়েছে। এদিকে পটুয়াখালী, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া, লক্ষ্মীপুরের কমলনগর, পাবনার সাঁথিয়া, মুন্সীগঞ্জের লৌহজং ও ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় নৌকা প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিভিন্ন অভিযোগে পাঁচ থানায় ৭৭৫ নেতাকর্মীর নামে আলাদা মামলা হয়েছে।

বগুড়ার সোনাতলার চরপাড়া বাজারে ধানের শীষ ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সংঘর্ষ চলাকালে ১১টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও চারটিতে অগ্নিসংযোগ, ছয়টি দোকান, দুটি আওয়ামী লীগের আঞ্চলিক কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এসব ঘটনায় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতরা গ্রেপ্তার এড়াতে বিভিন্ন

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছে। সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ধানের শীষের প্রার্থী কাজী রফিকুল ইসলাম ও নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নানের নেতাকর্মীদের মধ্যে কয়েক দিন ধরেই উত্তেজনা চলছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তা হাঙ্গামায় রূপ নেয়। বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মণ্ডল জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১২ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে। এদিকে বগুড়া সদর, কাহালু ও নন্দীগ্রামে হামলা-ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটছে। এসব ঘটনায় একে অন্যকে দায়ী করছে।

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার খাদিমপুরে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়। এদিকে জীবননগরের হাসাদাহ বাজারে নৌকার মিছিলে বোমা হামলায় রিংকু নামের একজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনে ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জে এম নুরুর রহমানের ওপর গত বুধবার দুপুরে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় আহত হওয়ার আট ঘণ্টা পর তাঁকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী পঙ্কজ নাথের ক্যাডাররা পিটিয়ে তাঁর পা ভেঙে দিয়েছে। গতকাল সকালে বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির এ ঘটনার জন্য আওয়ামী লীগের প্রার্থী পঙ্কজ নাথকেই দায়ী করেছে। তবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নুরুর রহমানের পা ভাঙেনি।

এদিকে সংসদ নির্বাচন ঘিরে বরিশাল সদর আসনের বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তাঁর বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

কুমিল্লার মেঘনার চন্দনপুর ইউনিয়নের সাতানি বাজারের ট্রলার ঘাটে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ধানের শীষের প্রার্থী ড. খন্দকার মোশাররফ প্রচারাভিযানে গিয়ে মাঝপথে যুবলীগ নেতাকর্মীদের ধাওয়া খেয়ে ফিরে গেছেন। এদিকে কুমিল্লা-৬ (সদর) আসনের বিএনপি প্রার্থী হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিন গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের নিমতলী বাসায় সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন, একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করার পাশাপাশি পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা, প্রচার মাইকিং ও নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করা হচ্ছে।

নাটোর জেলা জামায়াতের আমির অধ্যাপক বেলাল উজ্জামানকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে মারধর করে ফেলে রেখে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এদিকে বৃহস্পতিবার নাটোরের দিঘাপতিয়া বাজারে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আবুল কালাম আজাদকে মারধর করে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। একই বাজারে সদর উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি আবুল হাশেমকে মেরে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।

পটুয়াখালী শহরে গত বুধবার রাতে দুই স্থানে দুটি ইজি বাইক পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এদিকে মির্জাগঞ্জ ও দুমকিতে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বাউফলে এক বিএনপি কর্মীর হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় গত বুধবার রাতে নৌকা প্রতীকের দুটি অফিসে হামলা হয়েছে। এ হামলায় কমপক্ষে ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এদিকে একই দিন রাতে রাজনগরে নৌকার প্রচার গাড়িতেও হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এদিকে নির্বাচনী পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা, ধরপাকড় ও তল্লাশির নামে পুলিশি হয়রানির অভিযোগ করেছেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি মৌলভীবাজার জেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবর একটি লিখিত চিঠি দেন। লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে গত বুধবার রাতে উপজেলার তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে দুর্বৃত্তরা নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে।

পাবনার সাঁথিয়ায় গত বুধবার রাতে উপজেলার নৌকার তিনটি প্রচার অফিসে ভাঙচুর ও আগুন দিয়েছে দুবৃর্ত্তরা। এদিকে পাবনা-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী কে এম আনোয়ারুল ইসলামের বাড়িতে গত বুধবার রাতে উপজেলা যুবলীগের নেতৃত্বে মিছিল নিয়ে হামলার প্রতিবাদে ও এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রেখে নির্বাচনী পরিবেশ রক্ষার দাবি করা হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের গাঁওদিয়া ইউনিয়নে গত বুধবার রাতে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার এনায়েতপুর ইউনিয়নে গত বুধবার রাতে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচারণা ক্যাম্পে ও ছাত্রলীগ নেতার মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা।

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর মহাজোট প্রার্থী ডা. রুস্তম আলীর লাঙল প্রতীকের সমর্থকদের হামলায় ইনডিপেন্ডেন্ট টিভির পিরোজপুর প্রতিনিধি মো. তামিম সরদার গুরুতর আহত হয়েছেন।

মানিকগঞ্জ-৩ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী জহিরুল আলম রুবেল আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় প্রেস ক্লাবে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগ করেন।

চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি মমিনুল হক গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেছেন, পুলিশ রাতে নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশি করছে। নেতাকর্মীদের বাড়ি থেকে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীসহ নেতাকর্মীদের ওপর গুলি, হামলা, গণগ্রেপ্তার, নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ বন্ধ এবং নির্বাচনী লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করার দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছে রাজশাহী বিএনপি।

নেত্রকোনা-১ আসনে বিএনপি প্রার্থী ব্যরিস্টার কায়সার কামালের ওপর ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলার প্রতিবাদে গতকাল দুপুরে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ের সামনে অনশন করছে প্রার্থীসহ নেতাকর্মীরা।

এদিকে গত বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার নেতাদের মধ্যে বিএনপি সমর্থিত সাবেক মেয়র, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানও রয়েছেন। এর মধ্যে সাতক্ষীরায় ৭৫ জন, ঢাকার ধামরাইয়ে একজন, ফরিদপুর সদর ও বোয়ালমারীতে চারজন, মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় একজন, নওগাঁর আত্রাইয়ে তিনজন, রাজশাহীর বাঘা ও দুর্গাপুরে দুজন, ময়মনসিংহের নান্দাইল ও ত্রিশালে তিনজন, কুড়িগ্রামের উলিপুরে দুজন, সিরাজগঞ্জে একজন, রাজবাড়ীতে তিনজন, দিনাজপুরের পার্বতীপুরে একজন, ঝালকাঠিতে একজন এবং পাবনার সাঁথিয়ায় ৯ জন বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গাজীপুর-২ আসনের বিএনপি প্রার্থী সালাউদ্দিন সরকারসহ ২৪ বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। একই সঙ্গে ১১ জনকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে ময়মনসিংহের নান্দাইল, ফুলবাড়িয়া ও ত্রিশালে ২২২ জন, নাটোরের সিংড়ায় ৪৮০ জন, লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ৭৩ জন বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীকে আসামি করে বিভিন্ন অভিযোগে আলাদা মামলা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত