প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জনগণের সমর্থন ছাড়া ক্ষমতায় গেলে নিজেই নিজের কাছে চোর হয়ে থাকতে হবে : আহমদ আজম খান

খায়রুল আলম : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমদ আজম খান বলেছেন, আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতি, আমাদের রাজনৈতিক নেতাদের কথা বলার সংস্কৃতি ও ব্যবহার সবার আগে ঠিক করা দরকার।

এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপের সময় তিনি বলেন, আমরা যে ভাষায় কথা বলি, সেটি মানুষ পছন্দ করে না। বিরোধিতা রাজনীতিতে থাকবেই। প্রতিপক্ষকে বিভিন্নভাবে আক্রমণ করে বিজয়ী হওয়ার নিয়ম সারা বিশ্বেই আছে। তাই বলে যারা বিরোধী দল তাদের আক্রমণের নামে এমন ভাষা ব্যবহার করি, এমন কিছু কথা বলি, যে কথা শুনে জনগণ হাসাহাসি করে। এটি আমাদের জন্য খুবই লজ্জাজনক। এমন কথা শুনে মানুষ প্রশ্ন করে, এগুলো কি আমাদের রাজনৈতিক নেতাদের ভাষা? এ রাজনৈতিক নেতা দিয়ে দেশ চলবে? এটি বড়ই দুঃখজনক। বাংলাদেশে যারা রাজনীতি করেন, শাসক দলে আছেন বা বিরোধী দলে আছেন, সবার আগে আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতি তৈরি করা দরকার। আমরা ভালো কিছু করলে জনগণ ভালো কিছু পাবে। জনসাধারণের সাথে মিশে দেখেন, মানুষ আমাদের অত্যন্ত ঘৃণার চোখে দেখে। তারা সমালোচনা করে, এ ধরনের রাজনৈতিক নেতারা দেশ চালালে দেশ কোথায় গিয়ে পৌঁছবে? একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে খুব কষ্ট হয়, যখন দেখি একজন সিনিয়র রাজনৈতিক নেতা কথা বলার সময় মুখের কোনো লাগাম থাকে না। যে কথা শুনে লজ্জিত হতে হয়! আমিও তো রাজনীতিবিদ! যে দেশে ডাক্তার, ডক্টর, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষিত মানুষ ও সাংবাদিকের অভাব নেই, সে দেশের রাজনৈতিক নেতাদের বক্তব্যের মান কেমন হওয়া উচিত? বিরোধী দলকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে আমরা জনগণকে কী দিতে পারবো? এ দেশে প্রায় এক কোটি উচ্চ শিক্ষিত লোক আছে। তাদের চোখে আমরা কেমন? তারা আমাদের কেমনভাবে নেয়? আমরা যেনেতেনোভাবে ক্ষমতায় যেতে পারি। কিন্তু ক্ষমতায় গেলেই কী সব কিছু পাওয়া হয়ে যায়। জনগণের ভালোবাসা থাকতে হবে। জনগণের সমর্থন থাকতে হবে। তাহলে ক্ষমতায় গিয়ে দেশ শাসন করে শান্তি পাওয়া যাবে। না হলে তো নিজেরাই নিজেদের কাছে চোর হয়ে থাকতে হবে। জনগণে ভালোবাসা দিয়ে, বিরোধী দলকে সমান অধিকার দিয়ে ক্ষমতায় গেলে, নিজের মনেও শান্তি থাকবে জনগণেরও কল্যাণ হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত