প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আইএসমুক্ত মসুলের মেয়েরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে

রাশিদ রিয়াজ : আইএস জঙ্গিরা ইরাকের মসুল দখলের টানা তিন বছর সেখানকার মেয়েরা চরম নির্যাতনের শিকার হয়েছিল। আপাদমস্তক ঢেকে রাখতে হত তাদের। ধর্ষণ, এক হাত থেকে অন্যহাতে বেচে দেয়া ছাড়াও আইএস জঙ্গিরা নারীদের ওপর এক বিভীষিকাময় রাজত্ব কায়েম করেছিল। এখন সেই মসুলেই নারীরা সৌন্দর্য চর্চা থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছেন। বোটক্স ইঞ্জেকশন, দাঁত সাদা বা ফিলিং করতে ডেন্টিস্ট থেকে শুরু করে বিউটি সেলুনগুলো এখন ব্যস্ত হয়ে উঠেছে। মসুল থেকে আইএস জঙ্গি বিতাড়িত হওয়ার পর শহরটির ৫টি কসমেটিক ক্লিনিক পুনরায় খুলেছে। ডেইলি মেইল

মসুলে পুরুষদেরও চুল ও দাঁড়ি লম্বা রাখতে বাধ্য করত আইএস জঙ্গিরা। প্লাস্টিক সার্জারি করা ছিল অপরাধ। বছর খানেকের মধ্যে মসুলে নারী-পুরুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে শুরু করেছেন। ‘পোড়া দাগ দূর করতে চান, মুখের ব্রনের সমস্যা খুঁজছেন কিংবা অমলিন হাসি হাসতে চান’ এমন অনেক বিজ্ঞাপন নিয়ে মসুলের প্লান্সিক সার্জন ও বিউটিসিয়ানরা পত্রিকার পাতায় বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। ৪০ বছরের ইরাকি এক নারী তার মোট ঠোঁট পাতলা ও আরো মোহনীয় করতে চান। এজন্যে তিনি নিচ্ছেন বোটক্স সুবিধা। কেউ আসছেন টাকা মাথায় চুল লাগাতে। তাদের একজন নাজিব বলেন, তারা বলছে তাদের যন্ত্রপাতি অত্যাধুনিক। নার্সরা নির্ভরযোগ্য আর খরচও বেশি নয়। এধরনের চুল লাগাতে মোটামুটি ৮’শ ডলার খরচ দিতে হয়। কিন্তু মসুল থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে আরবিল বা তুরস্কে এধরনের অস্ত্রপচারে খরচ পড়ে ১২’শ ডলার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত