প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লুকাসকে নিয়ে ৮১৪ কোটি টাকার দলবদল নাটক

স্পোর্টস ডেস্ক : গতকাল পর্যন্তও লুকাস ফার্নান্দেজের দলবদল নিয়ে কোনো রকম গুঞ্জন আলোচনা ছিল না। কিন্তু অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের এই ফরাসি ডিফেন্ডারকে নিয়ে হঠাৎই জমজমাট দলবদল নাটক। স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কা আজকের (বৃহস্পতিবার) এক প্রতিবেদনে স্পষ্ট করেই লিখেছে, ফ্রান্সের এই তরুণ ডিফেন্ডারকে দলে টানার বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেলেছে বায়ার্ন মিউনিখ। মানে কথা বার্তা পাক্কা। পত্রিকাটি এটাও নিশ্চিত করে জানিয়েছে, লুকাসকে ৮৫ মিলিয়ন ইউরোয় কিনছে বায়ার্ন। বাংলাদেশি মুদ্রায় অঙ্কটা ৮১৪ কোটি ৬৪ লাখ ১৬ হাজার ৫২৯ টাকা মাত্র!

কিন্তু মার্কার এই খবর নিয়ে লুকাসের বর্তমান ক্লাব অ্যাতলেতিকো ও ক্রেতা বায়ার্ন মিউনিখের প্রতিক্রিয়া পুরো বিপরীতমুখী। অ্যাতলেতিকো খবরটি উড়িয়ে দিয়েছে। দাবি করে লুকাস অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের খেলোয়াড়। সে অ্যাতলেতিকোতেই থাকতে চায়। বায়ার্নের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে কথা-বার্তা চূড়ান্ত হয়নি।

অন্যদিকে বায়ার্ন মিউনিখ খবরটিকে গুঞ্জন বলে উড়িয়েও দেয়নি। আবার কথা-বার্তা পাকা হওয়ার বিষয়টিও নিশ্চিত করেনি। তবে লুকাসের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে যে কথা-বার্তা চলছে, সেটা স্বীকার করেছেন জার্মান ক্লাবটির প্রধান নির্বাহী কার্ল হেইঞ্জ রুমেনিগে। তিনি স্পষ্ট করেই বলেছেন, জানুয়ারিতেই হয়ে যেতে পারে চুক্তিটা।

২২ বছর বয়সী লুকাস অ্যাতলেতিকোর ঘরের ছেলে। ২০০৭ সালে মাত্র ১১ বছর বয়সেই যোগ দেন অ্যাতলেতিকোর যুব একাডেমীতে। সেই থেকে অ্যাতলেতিকোই তার ঘর-বাড়ি। যুব দল, বি দল পেরিয়ে ২০১৪ সাল থেকে খেলছেন অ্যাতলেতিকোর মূল দলে।

গত গ্রীষ্মে অ্যাতলেতিকোর সঙ্গে নতুন করে চুক্তিও নবায়ন করেছেন লুকাস। নতুন চুক্তির মেয়াদ ২০১৪ সাল পর্যন্ত। কিন্তু হঠাৎই তাকে নিয়ে দলবদল আলোচনা তুঙ্গে। মার্কা জানিয়েছে, অ্যাতলেতিকোতে লুকাসের রিলিজ ক্লজ ৮৫ মিলিয়ন ইউরো। এই টাকা দিয়েই তাকে নিজে রাজি বায়ার্ন মিউনিখ। মার্কা এটাও জানিয়েছে, জানুয়ারির ১ তারিখ, অর্থাৎ শীতকালীন দলবদল উইন্ডো শুরুর দিনই রিলিজ ক্লজের টাকাটা পরিশোধ করে লুকাসকে ঘরে তুলে নেবে বায়ার্ন।

কিন্তু মার্কার খবরটি উড়িয়ে দিয়ে অ্যাতলেতিকোর সভাপতি এনরিক সেরেজো স্পেনেরই আরেক পত্রিকা ‘স্পোর্টসইউ’কে বলেছেন, ‘লুকাস ফার্নান্দেজ অ্যাতলেতিকোর খেলোয়াড়। সে আমাদের সঙ্গেই থাকতে চায়। সত্যি বলতে আমরা জার্মান ক্লাবটির প্রস্তাব সম্পর্কে অবগতই নই!’ লুকাসকে বিক্রি করা হবে না জানিয়ে তিনি এটাও বলেছেন, ‘আমরা দল গড়ে তুলছি, কাউকে বিক্রি করব না।’ তিনি বায়ার্নের সঙ্গে নিজেদের সুসম্পর্কের কথাও দাবি করেছেন। মাদ্রিদের ক্লাবটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমেও খবরটিকে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

ঘটনা এখানেই শেষ হলে কথা ছিল। কিন্তু পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বায়ার্নের প্রধান নির্বাহী কার্ল হেইঞ্জ রুমেনিগে অ্যাতলেতিকোর সভাপতির ঠিক বিপরীত মন্তব্যই করেছেন। তার কথা বরং মার্কার খবরটিকেই ‘সত্য’-এর ছাড়পত্র দিচ্ছে। লুকাসের সঙ্গে চুক্তির প্রসঙ্গে তিনি স্পষ্ট করেই বলেছেন, ‘দেখা যাক, জানুয়ারির মধ্যে আমরা এ বিষয়ে কিছু একটা করতে পারি কিনা। তবে এই মুহূর্তে আমি মার্কার খবরটিকে নিশ্চিতও করছি না, আবার অস্বীকারও করছি না। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের সভাপতির সঙ্গে আমার সম্পর্কটা খুবই ভালো। -পরিবর্তন ডটকমস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত